ফেসবুক হ্যাক করে চাঁদাবাজি করতেন খালেদ

ফেসবুক হ্যাক করে চাঁদাবাজি করতেন খালেদ

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম ৩০ নভেম্বর : নাম খালেদ মাহমুদ। বয়স মাত্র ১৮ বছর। চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র। এই বয়সে তিনি একজন দুর্ধর্ষ ফেসবুক হ্যাকার। তরুণীদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে সেটি আবার ফিরিয়ে দেয়ার বিনিময়ে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করে আসছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আটকা পড়েছেন চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশের জালে।

বৃহস্পতিবার নগরীর কোতোয়ালি থানার জসসা মার্কেটের সামনে থেসে হ্যাকার খালেদকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় মহানগর গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগের একটি দল।

মহানগর গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার মো. মিজানুর রহমান জানান, নগরীর সামিয়া হোসেন নামের এক তরুণীর আইডি কয়েক সপ্তাহ পূর্বে আকস্মিক হ্যাক হয়ে যায়। সামিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করে বলা হয় আইডি ফিরে পেতে হলে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে হবে। চাঁদা পরিশোধ করতে সামিয়াকে একটা বিকাশ নম্বর দেয়া হয়। কিন্তু সামিয়া টাকা না দেয়ায় কয়েক দিন পর আবার যোগাযোগ করে বিকাশ নম্বরে ২০ হাজার টাকা চাওয়া হয়। চাঁদা না দিলে আইডিতে থাকা ছবি প্রযুক্তির সহায়তায় অশ্লীল ছবি বানিয়ে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়।

এই ঘটনায় তরুণী চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে অভিযোগ করলে অভিযানে নামে গোয়েন্দা পুলিশ। প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে পুলিশ তথ্য পায় ফেসবুক হ্যাকিং-এর সঙ্গে জড়িত রয়েছে খালেদ মাহমুদ নামে এক কলেজ ছাত্র। তার বাবা মফিজুর রহমান কুয়েত প্রবাসী। তাদের গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থানা এলাকায়। বর্তমানে নগরীর আলকরণ এলাকায় পরিবারের সঙ্গে বসবাস করেন।

বেশ কিছু দিন ধরে খালেদ মাহমুদ ফেসবুক আইডি হ্যাক করে চাঁদাবাজি করে আসছিলেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন