প্রশ্নের মুখে বোয়িং কোম্পানি

প্রশ্নের মুখে বোয়িং কোম্পানি

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম ১২ মার্চ : ইথিপিয়ান এয়ারলাইন্সের ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ জন আরোহী নিহত হওয়ার ঘটনার পর প্রশ্নের মুখে পড়েছে মার্কিন বিমান নির্মাতা কোম্পানি বোয়িং।

২০১৮ সালের অক্টোবরে ইন্দোনেশিয়ার জনপ্রিয় বিমান সংস্থা লায়ন এয়ারলাইন্সের আরেকটি বিমান জাভা সাগরে বিধ্বস্ত হয়ে প্রাণ যায় ১৮৯ জনের। এটিও ছিলো বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় বাণিজ্যিক বিমানের নাম বোয়িং-৭৩৭। এটিরই সর্বশেষ সংস্করণ ‘বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স’। উৎপাদন শুরুর কিছুদিন পর থেকেই বিতর্ক শুরু হয় মডেলটি নিয়ে।

গতকালের দুর্ঘটনার পর চীন তাদের দেশে এই মডেলের সকল ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করেছে।

ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থা ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স জানায়, রবিবার উড্ডয়নের ৬ মিনিট পর ১৫৭ জন যাত্রী ও ক্রু নিয়ে ইথিওপিয়ায় বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটির সকল আরোহী নিহত হয়। বোয়িং-৭৩৭ বিমানটি দেশটির রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে নাইরোবির উদ্দেশে যাত্রা করেছিলো। মাত্র ৪ মাস আগে বিমানটি বহরে যোগ করেছিলো এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

বিমান সংস্থার একজন মুখপাত্র বলেন, স্থানীয় সময় রবিবার ৮ টা ৪৪ মিনিট নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটে। ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে দুই ঘণ্টার দূরত্বে দুর্ঘটনাস্থলটি অবস্থিত।

গেল ৭ মার্চ মার্কিন সংস্থা আমেরিকান এয়ারলাইন্স ঘোষণা দেয়, বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের সদ্য কেনা ১৪টি বিমান আর ব্যবহার করবে না তারা। কারণ হিসেবে বলা হয়, এই মডেলের বিমানটির বেশকিছু যন্ত্র ঠিকভাবে বসানো হয়নি। এই ঘোষণার মাত্র ৩ দিন পরই ইথিওপিয়ায় ১৫৭ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন