রোজার মাসে নির্বাচন: ভারতে মুসলমানদের মধ্যে ক্ষোভ

রোজার মাসে নির্বাচন: ভারতে মুসলমানদের মধ্যে ক্ষোভ

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম ১৩ মার্চ : তফসিল ঘোষণার পর থেকে লোকসভা নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু হয়েছে ভারতে। ১১ এপ্রিল ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে সাত ধাপের এ ভোটগ্রহণ শেষ হবে ১৯ মে। ফলাফল ঘোষণা হবে ২৩ মে।

তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে রোববার থেকেই কার্যকর হচ্ছে নির্বাচনী আচরণবিধি। মঙ্গলবার গুজরাটের আহমেদাবাদে উচ্চপর্যায়ের একটি বৈঠকের মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণাও শুরু করে দিয়েছে কংগ্রেস।

তবে এবারের লোকসভা নির্বাচন রোজার মাসে পড়েছে, এ নিয়ে পশ্চিমভঙ্গে চলছে তুমুল রাজনৈতিক সমালোচনা। ইতিমধ্যে নির্বাচনের তারিখ সংশোধনের দাবি করেছেন অনেকে। রমজান মাসের আগে-পরে নির্বাচন করার দাবি ওঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে।

আম আদমি পার্টির অভিযোগ, বিজেপি মুসলিমদের ভোট পাবে না জানে। তাই মুসলিমরা যাতে বেশি পরিমাণে ভোট দিতে না পারেন, সে জন্যই রমজানের মাসে তিন দফায় ভোটগ্রহণ ফেলা হয়েছে। রমজানের মাসে ভোটগ্রহণ নিয়ে শুরুতেই আপত্তি জানিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস।

কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের বলেন, নির্বাচন হল গণতন্ত্রের উৎসব। সব ধর্মকেই তৃণমূল সম্মান করে। কিন্তু এভাবে রমজান পর্যন্ত ভোট টেনে নিয়ে যাওয়া মোটেই ঠিক হয়নি।

প্রসঙ্গত, এ বছরের রমজান মাস ৫ মে থেকে শুরু হওয়ার কথা। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে ৬ মে, ১২ মে ও ১৯ মে- তিন দফায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে এভাবে রমজান মাসে নির্বাচন হওয়ায় মুসলমানদের রোজা রেখেই নির্বাচনে অংশ নিতে হবে।

রমজান মাসে নির্বাচন প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, ‘ভোট একটা গণতান্ত্রিক উৎসব। এই উৎসব রমজান মাসে হওয়ার কারণে সাধারণ ভোটকর্মী থেকে শুরু করে ভোটদাতা, ভোট প্রচারকসহ সবার জন্যই একটা বাড়তি সমস্যা তৈরি হবে। আমরা আগেই নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়ে অনুরোধ করেছিলাম যাতে রমজান মাস ও শুক্রবারকে যেন ভোটগ্রহণের দিন থেকে বাইরে রাখা হয়।

আপের বিধায়ক আমানতুল্লা খানের অভিযোগ, ১২ মে দিল্লিতে ভোট। ওই সময় রমজানের মধ্যে মুসলিমরা কম ভোট দিলে বিজেপিরই সুবিধা হবে।

মহারাষ্ট্র কংগ্রেসের রাজ্যসভা বিধায়ক হুসেল দালওয়াই কমিশনের এমন সিদ্ধান্তের সমালোচনা করলেও কংগ্রেস এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো অবস্থান জানায়নি।

অবশ্য হায়দরাবাদ লোকসভার সদস্য ও অল ইন্ডিয়া মজলিসে ইত্তেহাদুল মুসলিমিনের প্রেসিডেন্ট ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়াইসির মত একটু ভিন্ন। তার মতে অশুভ শক্তিকে পরাজিত করতে রমজানের সময় মুসলমানরা আরও বেশি হারে ভোট দেবেন।

এদিকে নির্বাচন নিয়ে এমন বিতর্কের মুখে ভারতের নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে পুরো মাস বাদ দিয়ে লোকসভার ভোট করা সম্ভব নয়।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন