জাকারবার্গ-প্রিসিলার ভালোবাসার ১৬ বছর

জাকারবার্গ-প্রিসিলার ভালোবাসার ১৬ বছর

0

তথ্য ও প্রযুক্তি ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : ফেসবুক বস মার্ক জাকারবার্গ তার স্ত্রী প্রিসিলা চ্যানের সাথে ভালোবাসার ১৬তম বার্ষিকী উদযাপন করেছেন। ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে জাকারবার্গ তার স্ত্রীর সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করেছেন।

ছবিতে জাকারবার্গ এবং প্রিসিলাকে শ্যাম্পেনের গ্লাস হাতে দেখা গেছে। ছবির ক্যাপশনে জাকারবার্গ লিখেছেন, ‘১৬ বছর আগে আজকের দিনটি আমার জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিন ছিল। হ্যাপি ডেটিং অ্যানিভারসারি’।

পেছনের গল্প: জাকারবার্গ ও প্রিসিলা দুজনই হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পড়াশোনা করেছেন আর সেখানেই তাদের পরিচয়। ২০০৩ সালে হার্ভার্ডের এক পার্টিতে বাথরুমের লাইনে দাঁড়িয়ে দুজনের প্রথম পরিচয় হয়। ফেসবুক তৈরির পর প্রিসিলা প্রথম ব্যবহারকারীদের একজন। তিনি ২০০৪ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ফেসবুকে প্রোফাইল খোলেন। ২০০৭ সালে হার্ভার্ড থেকে স্নাতক শেষ করেন প্রিসিলা। নতুন একটা বাসা নেন গোল্ডেন গেট পার্কে। ফেসবুক নিয়ে মার্কের ব্যস্ততা তখন তুমুল। তাই সম্পর্কের ব্যাপারে কঠিন কিছু শর্ত জুড়ে দেন প্রিসিলা, ফেসবুক অফিসে নয়, প্রতি সপ্তাহে একান্তে অন্তত ১০০ মিনিট সময় দিতে হবে। অক্ষরে অক্ষরে তা পালন করে ফুল মার্কস অর্জন করেন জাকারবার্গ। এরপর একসঙ্গে ঘুরে বেড়িয়েছেন পুরো বিশ্ব।

প্রিসিলা জন্মসূত্রে চীনের নাগরিক এবং তার পরিবারের সদস্যরা মাতৃভাষা হিসেবে চাইনিজে অভ্যস্ত। তাই প্রিসিলার পরিবারের সদস্যের মন জয় করতে বেশ কয়েক বছরে চীনা ম্যান্ডারিন ভাষা পর্যন্ত রপ্ত করেন জাকারবার্গ। চীনে হবু শ্বশুরবাড়ি থেকেও ঘুরে আসেন এক ফাঁকে।

২০১০ সালে প্রিসিলা আর জাকারবার্গ একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন। তখন জাকারবার্গ তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট দিয়েছিলেন, প্রিসিলা চ্যান এ সপ্তাহেই চলে আসছে। ২০১১ সালের মার্চে দুজন মিলে তাদের প্রিয় কুকুর বিস্টকে ঘরে আনেন। ওই মাসেই তারা ফেসবুক প্রোফাইলে ‘ইন আ রিলেশনশিপ’ স্ট্যাটাস আপডেট করেন। ২০১২ সালে যে দিনটিতে প্রিসিলা মেডিক্যাল স্কুল থেকে গ্র্যাজুয়েট করেন এবং জাকারবার্গ ফেসবুককে পাবলিক কোম্পানি করেন, তার পরদিনই দুজন গাঁটছড়া বাঁধেন। অর্থাৎ দীর্ঘ ৯ বছরের প্রণয়ের অবসান ঘটিয়ে ২০১২ সালের ১৯ মে কলেজ জীবনের প্রেমিকাকে বিয়ে করেন জাকারবার্গ। মজার ব্যাপার হলো, বিয়ের দিন আমন্ত্রিত অতিথিদের কেউই জানত না যে সেদিন জাকারবার্গের বিয়ে। সবাইকে বলা ছিল প্রিসিলার গ্র্যাজুয়েশন উদযাপন করার জন্য ছোটখাটো একটা পার্টি রাখা হয়েছে। নির্দিষ্ট দিকে প্রিসিলাকে কনের বেশে দেখে সবাই তাজ্জব বনে যান।

এই দম্পতির প্রথম কন্যা সন্তান ম্যাক্সিমা জন্মগ্রহণ করে ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে। আর দ্বিতীয় কন্যা সন্তান আগস্ট জন্মগ্রহণ করে ২০১৭ সালের আগস্টে। দুই কন্যাকে নিয়ে এখন তাদের সুখের সংসার।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন