হালদা নদীতে নমুনা ডিম ছেড়েছে মা মাছ

হালদা নদীতে নমুনা ডিম ছেড়েছে মা মাছ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : দেশের একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে ‘নমুনা ডিম’ ছেড়েছে কাতলা, রুই, মৃগেল, কালবাউশ জাতের মা মাছ।

নদীর দুইপাড়ে মাছের নিষিক্ত ডিম সংগ্রহে বংশ পরম্পরায় অভিজ্ঞ জেলেরা অপেক্ষা করছেন।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) গভীর রাত ১২টার পর হালদা নদীর কাগতিয়ার মুখ থেকে গড়দুয়ারা নয়াহাট পর্যন্ত ডিম সংগ্রহকারীরা ‘নমুনা ডিম’ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন জানান, হালদা নদীর কাগতিয়ার মুখ থেকে গড়দুয়ারা নয়াহাট পর্যন্ত বিভিন্ন নৌকার ডিম সংগ্রহকারীরা জানান, তারা প্রতি জালে ১০০-১৫০ গ্রাম পর্যন্ত ডিম পাচ্ছেন। তাদের ভাষ্যমতে এগুলো নমুনা ডিম। ডিম সংগ্রহকারীরা জানিয়েছেন, পরে কেউ কেউ মোট ৫০০ গ্রামও পেয়েছেন। তারা মা-মাছের আনাগোনা দেখছেন। যেহেতু নমুনা ডিম ছেড়েছে মা-মাছ, সেহেতু এসব মাছের নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কেউ যাতে মা-মাছ শিকার করতে না পারে, সেদিকে কঠোর নজরদারি রাখা হয়েছে। ডিম থেকে রেণু ও পোনা তৈরির জন্য হ্যাচারিগুলো প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

হালদা গবেষক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মনজুরুল কিবরীয়া জানান, নমুনা ডিম ছাড়ার অর্থ হচ্ছে মা মাছ প্রস্তুত। মাছগুলো পরীক্ষা করে দেখছে ডিম ছাড়ার পরিবেশ, প্যারামিটারগুলো ঠিক আছে কিনা। যদি সব অনুকূলে থাকে তবে ডিম ছাড়বে।

এদিকে, জেলেরাও জাল, বালতি, নৌকা নিয়ে প্রস্তুত। প্রাকৃতিক বিষয়ে কারও নিয়ন্ত্রণ নেই। এমনও হতে পারে জোয়ারের সময় ডিম ছেড়ে দেবে। সবকিছু নির্ভর করছে সময়ের ওপর।

সাধারণত চৈত্র থেকে বৈশাখ মাসে অমাবস্যা, পূর্ণিমা ও অষ্টমী তিথিতে প্রবল পাহাড়ি ঢল ও শীতল আবহাওয়ায় কার্প জাতীয় মাছ নদীতে ডিম ছাড়ে। নমুনা ডিম মা মাছের প্রাকৃতিক প্রজননের জন্য প্রস্তুতের আভাস। অনুকূল পরিবেশ তৈরি হলেই মা মাছ ডিম ছাড়বে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন