১০ কিলোমিটার হেঁটে গিয়ে বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ

১০ কিলোমিটার হেঁটে গিয়ে বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে সে। তবে সাহস ও মনোবল বয়সের তুলনায় অনেক গুণ বেশি। ভারতের ওডিশার কেন্দাপাড়া এলাকার ওই শিশু বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে ১০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়েছে।

শিশুটির অভিযোগ, তার জন্য বরাদ্দ সরকারের দেওয়া মিড ডে মিলের চাল ও টাকা আত্মসাত্‍‌ করে লোভী বাবা। মেয়েটির অভিযোগ পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিয়েছেন কেন্দাপাড়ার কালেক্টর সমর্থ বার্মা। শিশুর নিজস্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্ট টাকা ট্রান্সফারের ব্যবস্থা করেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, এতদিন ধরে যে অর্থ ও চাল তার বাবা আত্মসাত্‍‌ করেছে, তাও মেয়েটিকে ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন কালেক্টর।

লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকে শিক্ষার্থীদের জন্য দৈনিক ৮ রুপি ব্যাংকের মাধ্যমে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে সরকার। যাদের অ্যাকাউন্ট নেই, তাদের অভিভাবকরাই সেই অর্থ সংগ্রহ করেন। পাশাপাশি মিড ডে মিলের আওতায় দৈনিক ১৫০ গ্রাম করে চালও দেওয়া হচ্ছে। ওই শিশুর নিজের অ্যাকাউন্ট থাকা সত্ত্বেও তার বাবার অ্যাকাউন্টেই অর্থ পড়ছে বলে অভিযোগ। শিশুটির নামের চালও তার বাবা নিজেই স্কুল থেকে সংগ্রহ করে নিচ্ছেন। অথচ তাকে অনেক আগেই ঘর থেকে বের করে দিয়েছে তার বাবা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, মেয়েটির মায়ের মৃত্যুর পর ফের বিয়ে করে তার বাবা। তার পর থেকেই মেয়েটির দুর্দশা শুরু। গত বছরই বাবা বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার পর থেকে মামার কাছে থাকে মেয়েটি।

কেন্দাপাড়ার জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সঞ্জীব সিং বলেছেন, ‘কালেক্টরের নির্দেশ অনুযায়ী, সরাসরি শিশুটির অ্যাকাউন্টেই টাকা পাঠাব আমরা। শিশুটির নাম করে তার বাবা যে অর্থ ও চাল আত্মসাত্‍‌ করেছে, তাও উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে।’

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন