সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
খালেদা জিয়া মুক্ত আছেন বলেই মুক্তভাবে চিকিৎসা নিতে পারছেন : আইনমন্ত্রী নতুন প্রজন্মের জন্য “চিরঞ্জীব মুজিব” এর মতো আরো চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান রাষ্ট্রপতির উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণের বিষয়ে জাতিসংঘে প্রস্তাব গ্রহণ মহান অর্জন : প্রধানমন্ত্রী ব্লু-ইকোনমির সুযোগ কাজে লাগাতে বিনিয়োগ করার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান জাপান সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে : জাপানের ভাইস-মিনিস্টার বিআরটিসির সব বাসেই শিক্ষার্থীরা অর্ধেক ভাড়া সুবিধা পাবে ‘ওমিক্রন’ প্রতিরোধে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির ৪ সুপারিশ ওমিক্রনে দক্ষিণ আফ্রিকায় মৃত্যুহার দ্বিগুণ হয়ে যাচ্ছে আর কোনো বিপদ ছাড়াই দিন শেষ করল বাংলাদেশ ‘ওমিক্রন’ নিয়ে দেশের সব প্রবেশপথে সতর্কবার্তা

আফ্রিকায় চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদের সুযোগ কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশ

আফ্রিকা মহাদেশের বিভিন্ন দেশে জমি ইজারা নিয়ে ‘কন্ট্রাক্ট ফার্মিংয়ের (চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদ)’ সুযোগ কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশ। এরই প্রস্তুতির অংশ হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকায় ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে যৌথভাবে সভাপতিত্ব করেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। বৈঠকে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান, পররাষ্ট্র সচিব এবং কৃষি, বাণিজ্য ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিগণ, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। আফ্রিকার দেশগুলোতে বাংলাদেশি কৃষক ও উদ্যোক্তারা কীভাবে চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদের সুযোগ পেতে পারেন সে বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, আফ্রিকার দেশগুলোতে জমি ইজারা নেওয়ার মাধ্যমে চাষাবাদের সুযোগ পেলে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশির কর্মসংস্থান হতে পারে। আফ্রিকার দেশগুলোতে শান্তিরক্ষা মিশনগুলো চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদের সুযোগের বিষয়ে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে বলে তিনি মত দেন।

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বিপুল জনগোষ্ঠীর বাংলাদেশের জন্য বিদেশে চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদ কর্মসংস্থান সৃষ্টির অন্যতম কার্যকর মাধ্যম হতে পারে। আফিকার দেশগুলোতে পণ্য উৎপাদন করে সেগুলো বাণিজ্যিকীকরণের জন্য বাংলাদেশিদের কাজের সুযোগ সৃষ্টি পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন। এ ক্ষেত্রে তিনি উপযুক্ত দেশগুলোকে চিহ্নিত করার ওপর জোর দেন।

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, পররাষ্ট্র, কৃষি ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রাথমিকভাবে পাইলট প্রকল্প হিসেবে চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদের সুযোগ সৃষ্টির জন্য একসঙ্গে কাজ করতে পারে। তিনি এ ক্ষেত্রে আফ্রিকার সম্ভাবনাময় দেশগুলোর সঙ্গে কাঠামো চুক্তি সই করার ওপরও জোর দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com