বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন

বিদেশে যেতে পারবেন হারুন

মানিলন্ডারিং আইনে দুদকের করা মামলায় চার বছরের কারাদণ্ড পাওয়া ডেসটিনির প্রেসিডেন্ট সাবেক সেনাপ্রধান হারুন-অর-রশিদকে বিদেশ ভ্রমণে চার মাসের অনুমতি দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ সোমবার (২৩ জানুয়ারি) এ মামলায় জামিনে থাকা হারুনের আবেদনের ওপর শুনানি শেষে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, আদালতের জিম্মায় থাকা পাসপোর্ট নিয়ে হারুন-অর-রশিদ চার মাসের জন্য বিদেশে যেতে পারবেন। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দেশে ফিরে তাকে পাসপোর্ট জমা দিতে হবে।

২০২২ সালের ১২ মে অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের এই মামলায় ডেসটিনি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রফিকুল আমীন, কম্পানির প্রেসিডেন্ট সাবেক সেনাপ্রধান হারুন-অর-রশীদসহ ৪৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের পাশাপাশি অর্থদণ্ড দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪-এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম।

ডেসটিনি গ্রুপের এমডি রফিকুল আমীনকে ১২ বছরের কারাদণ্ড ও ২০০ কোটি টাকা অর্থদণ্ড, ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড ও ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং ডেসটিনি গ্রুপের প্রেসিডেন্ট ও সাবেক সেনাপ্রধান এম হারুন-অর-রশীদকে চার বছরের কারাদণ্ড ও ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও অন্য আসামিদের ৫ থেকে ৯ বছরের কারাদণ্ডের পাশাপাশি অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভের নামে ডেসটিনি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ১ হাজার ৯০১ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। সেখান থেকে আত্মসাৎ করা হয় ১ হাজার ৮৬১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। এরপর ডেসটিনির এমডি রফিকুল আমিনসহ ৫১ জনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়। এরমধ্যে কো-অপারেটিভ সোসাইটির মামলায় ৪৬ জন এবং ট্রি-প্ল্যানটেশন মামলায় ১৯ জনকে আসামি করা হয়। মোট আসামি ৬৫ জন হলেও রফিকুল আমিনসহ ১৪ জনের নাম দুই মামলায় থাকায় মোট আসামি ৫১ জন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com