শুক্রবার, ১২ Jul ২০২৪, ০৫:০৫ অপরাহ্ন

রিজার্ভ বেড়ে ৩০ বিলিয়নের বেশি

আবারও বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩০ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে। ফলে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতেও ডলার সংকট কাটছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী মুখপাত্র সরোয়ার হোসেন বলেন, চলতি মাসে রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে রিজার্ভ বেড়েছে। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর কাছেও প্রায় আড়াই বিলিয়ন ডলার মার্কিন ডলার রয়েছে।

তিনি জানান, ব্যাংকগুলো এখন এলসি খোলার ক্ষেত্রে ভালো অবস্থায় আছে। কিছুদিন আগেও যে সমস্যা ছিল, এখন আর সেই অবস্থায় নেই। পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে।

এর আগে মার্চ ও এপ্রিল দুই মাসের এশিয়া ক্লিয়ারিং হাউজের ১ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার আমদানি ব্যয় মেটানোর পর বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২৯ ডলারে নেমে আসে।

মঙ্গলবার (২০ জুন) রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ২৯ দশমিক ৯৫ বিলিয়ন ডলার। সম্প্রতি এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের ৪০০ মিলিয়ন ডলার বাজেট সহায়তা যোগ হওয়ার ফলে বিরাজার্ভের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, জুন মাসের ১৬ দিনে দেশে প্রবাসী আয় এসেছে ১ দশমিক ৬৯১ বিলিয়ন ডলার। এ প্রবাসী আয় আগের মাস মে এবং আগের বছর জুনের চেয়ে বেশি। মে মাসে প্রবাসীরা পাঠিয়েছিলেন ১ দশমিক ৬৮৪ বিলিয়ন ডলার। আর আগের বছর ২০২২ সালের জুন মাসে প্রবাসীরা পাঠিয়েছিলেন ১ দশমিক ৮৩৭ বিলিয়ন ডলার।

অনকেই মনে করছেন, ঈদুল আজহাকে সামনে করে প্রবাসী আয় বাড়ছে । প্রবাসী আয় ব্যাংকিং চ্যানেলে পাঠাতে ডলারের বিপরীতে টাকা বৃদ্ধি ও প্রণোদনার কারণে বেশি প্রবাসী আয় আসছে বলে মনে করছেন ব্যাংক সংশ্লিষ্টরা। ফলে ঈদের পরও প্রবাসী আয়ের ইতিবাচক ধারা অব্যাহত থাকবে। আর প্রবাসী আয় বেশি এলে ব্যাংকগুলো নির্দিষ্ট পরিমাণ নিজেদের প্রয়োজন মেটানোর জন্য রেখে বাকিটা বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে বিক্রি করে, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ হিসাবে যুক্ত হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com