রবিবার, ২৩ Jun ২০২৪, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

স্বামীর যাবতীয় সম্পত্তির অর্ধেক স্ত্রীর : ভারতের হাইকোর্ট

ভারতের হাইকোর্ট ঐতিহাসিক রায় দিয়েছেন নারীদের পক্ষে। এখন থেকে ভারতীয় নারীরা তাদের স্বামীর সম্পত্তির সমান অধিকার পাবেন। এই সংক্রান্ত মামলা চলাকালীন মুসলিম ধর্মীয় নেতাদের পক্ষ বার বার বলা হয়েছে এটি ইসলাম ধর্মের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। কিন্তু ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছিলেন এর পক্ষে।

ভারতের মাদ্রাজ হাইকোর্ট বলেন, তাদের কাজের কোনও নির্দিষ্ট সময় নেই। ৩৬৫ দিনে একদিনও তারা ছুটি পান না। পরিবার আর সংসারের জন্য হাসিমুখে পরিশ্রম করতে থাকেন, প্রত্যেকের যাবতীয় খুঁটিনাটির দিকে নজর রাখেন। এতকিছু করে কি পান গৃহবধূরা? সাম্প্রতিক এক মামলার রায় দিতে গিয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই বিষয়টি তুলে ধরেন ।

রায় দিতে গিয়ে আদালত সাফ জানিয়েছে, পরিবারের অর্থাৎ স্বামীর যাবতীয় সম্পত্তিতে সমান অধিকার থাকবে গৃহবধূর। কারণ এই সম্পত্তি অর্জনের ক্ষেত্রে তাদের পরোক্ষভাবে অবদান থাকে এবং সেই অবদান অনস্বীকার্য। খবর সংবাদ প্রতিদিনের

এক দম্পতির বিবাদের মামলার রায় দিতে গিয়ে এ কথা জানিয়েছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। খবরে বলা হয়েছে, কান্নাইয়ান নায়ডু নামে এক ব্যক্তি তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। ১৯৬৫ সালে তাদের বিয়ে হয়। দীর্ঘদিন বিদেশে কর্মরত ছিলেন তিনি। সেই সময় দেশে থেকে সংসারের হাল ধরেন তার স্ত্রী। কিন্তু কান্নাইয়ানের অভিযোগ, তার উপার্জিত অর্থ দিয়ে যা সম্পত্তি কেনা হয়েছিল সেগুলো আত্মসাৎ করতে চাইছেন স্ত্রী। এমনকি সম্পত্তি হাতানোর জন্য অন্যদের সাহায্যও নিয়েছেন স্ত্রী।

২০০২ সালে দায়ের হওয়া এই মামলার শুনানিতে কান্নাইয়ানের স্ত্রী পালটা দাবি করেন, একা হাতে সংসারের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তার ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব হয়নি। উল্টো নিজের যাবতীয় গয়না ও সম্পত্তি বিক্রি করে দিয়ে স্বামীর বিদেশযাত্রার খরচ জোগাড় করেছেন। স্বামীর উপার্জিত অর্থের পাশাপাশি তিনি নিজেও সেলাইয়ের কাজ করে রোজগার করেছেন। দু’জনের সম্মিলিত অর্থ দিয়েই সংসারের সম্পত্তি কেনা হয়েছে।

দু’পক্ষের বয়ান খতিয়ে দেখে মাদ্রাজ হাইকোর্ট রায় দেয়, সংসারের যাবতীয় সম্পত্তিতে সমান অধিকার রয়েছে গৃহবধূর। কারণ প্রত্যক্ষভাবে রোজগার না করলেও অর্থ উপার্জন করতে স্বামীকে সাহায্য করেন তারা। ছুটি না নিয়েই তারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেন। এছাড়াও মনে করা হয় স্বামী ও স্ত্রী আসলে গাড়ির দুই চাকা। তাই সম্পত্তির অধিকারে দুই চাকারই সমান অধিকার থাকবে।

আদালত আরও জানায়, গৃহবধূর অবদান প্রসঙ্গে আইনে কিছু লেখা নেই। তবে এই বিষয়ে আদালতের পর্যবেক্ষণ থাকতেই পারে। গৃহবধূদের ন্যায্য অধিকার থেকে কোনও আইনই বঞ্চিত করতে পারে না।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com