সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০১ অপরাহ্ন

টেলিপাড়ায় বৈরী পরিবেশ বিরাজ করছে : দীপা খন্দকার

টিভি নাটকের দর্শকপ্রিয় মুখ দীপা খন্দকার। প্রথম অভিনীত নাটকের নাম ‘কাকতাড়ুয়া’। পরিচালক ছিলেন কাজী শাহীদুল ইসলাম। এরপর অসংখ্য টেলিভিশন নাটক এবং একাধিক সিনেমায় অভিনয় করেও প্রশংসিত হয়েছেন। এরই মধ্যে ক্যারিয়ারের ২৫ বছর পার করা এই অভিনেত্রী বর্তমানে নাটকের চেয়ে সিনেমাতেই বেশি মনোযোগী। সম্প্রতি বরেণ্য অভিনেতা আফজাল হোসেনের বিপরীতে ‘অপরাজেয়’ নামের একটি সিনেমায় অভিনয় করে আলোচনায় আসেন। সিনেমাটির পরিচালক ছিলেন প্রয়াত সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকি। এছাড়া আরও কয়েকটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় আছে।

বর্তমান ব্যস্ততা… ওটিটির কাজের কথা হচ্ছে। সম্প্রতি একটি সিনেমার কাজ করলাম। ‘ডার্ক ওয়ার্ল্ড’ সিনেমার শুটিং ডাবিং শেষ। তবে আগের মতো নাটকে ততটা করা হচ্ছে না। টেলিপাড়ায় বৈরী পরিবেশ বিরাজ করছে। এই পরিস্থিতির কারণে নাটকে অভিনয় কম করছি।

সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে প্রভাব… আমরা সাংস্কৃতিক কর্মীরা তো বেকায়দায় আছি ভাই, হরতাল অবরোধের কারণের আগের মতো কোনো কাজ করতে পারছি না। সর্বত্রই আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঠিকমতো কাজ করতে না পারলে তো রুটিরুজি বন্ধ। আমরা শ্রমিকের মতোই, কাজ না করলে আমাদের চলবে কি করে বলেন?

সিনেমা ‘অপরাজেয়’ প্রসঙ্গে… সৈয়দ সালাউদ্দীন জাকির মতো এতবড় একজন নির্মাতা, একজন লিজেন্ডারি মানুষের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি খুবই গর্বিত। তিনি তো চলেই গেলেন। এরপর চ্যানেল আই সিনেমাটির দায়িত্ব নিয়েছে। তবে আমার মতে খুব, খুবই ভালো একটি কাজ হয়েছে। শুটিং ডাবিং শেষ। এখন রিলিজ হওয়া বাকি। আশা করি, দর্শকরা ভালো একটি কাজ দেখতে পাবেন।

ক্যারিয়ারের ২৫ বছর… এ বিষয় নিয়ে আগেও বলেছি মানুষের ভালোবাসা সম্মান, পরিচিতি, বলতে পারেন ২৫ বছরের ক্যারিয়ারে সবই অর্জন। একটি জায়গায় ভালোভাবে, সম্মানের সঙ্গে এবং মানুষের ভালোবাসা নিয়ে পার করে দিলাম। এমন না যে কাজ খুব কম করেছি, শুরু থেকে নিয়মিত অভিনয় করে যাচ্ছি। আমার কাছে নিয়মিত অভিনয় করে যাওয়াই বড় ব্যাপার। এটাই বড় পাওয়া এবং অর্জন। এই যে আপনি ফোন করেছেন, অপরিচিত নম্বর থেকে নিয়মিত ফোন আসে, অনেকেই কথা বলেন, আপনার মতো অনেক মানুষই আমাকে চেনে, ভালোবাসে, সম্মান করে, এগুলো তো আমার মতো একজন শিল্পীর জীবনের অর্জন, তাই না?

সাংস্কৃতিক ক্যারিয়ারে পাওয়া না পাওয়ার হিসাব… দেখুন আমি মনে করি, শিল্পী জীবন শুধু নয় প্রতিটি মানুষের জীবনেই পাওয়া না পাওয়া থাকে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যে রকম চরিত্র চেয়েছি তা হয়ত সবসময় পাইনি। আবার কিছু কিছু পেয়েছি। এ রকম কিছু না পাওয়া তো থাকেই। তবে হিসাব করলে তো প্রাপ্তির সংখ্যাই বেশি। খুব বেশি চাওয়া নেই। একটিই চাওয়া অভিনয় করে যাওয়া। আমি শুধু অভিনেত্রী পরিচয় চেয়েছি। অনেকগুলো পরিচয়ের জন্য আমি আকুল কিংবা ব্যাকুল নই। সবসময় চেয়েছি অভিনয়টা ভালোমতো করতে, অভিনয় নিয়ে মানুষের কাছাকাছি থাকতে। একটি পরিচয়ই একজন মানুষের জন্য অনেক।

পরিচালক হিসেবে… আমি আসলে অভিনয়টাই করতে চেয়েছি। পরিচালনার কথা ভাবিনি, ওইভাবে ইচ্ছাও হয়নি। তবে আগামীতে শখের বশে একটি বা দু’টি নাটক পরিচালনা করতে পারি। সেটা ধরুন শর্টফিল্ম পরিচালনা করতে পারি। অনুদানের সিনেমা যদি হয়, ছোটদের জন্যও কিছু করতে পারি। তবে আগেও বলেছি সবার আগে সব সময় অভিনয়টাকেই প্রাধান্য দেব।

ক্যারিয়ার, সংসার, সংগ্রাম… ক্যারিয়ারের নিয়ে আমার আসলে ওভাবে সংগ্রাম করতে হয়নি। চাওয়ার আগেই বেশি পেয়েছি। যে সময়ে জাহিদ হাসান, তৌকির আহমেদ, টনি ডায়েস, মাহফুজ আহমেদ, আজিজুল হাকিম বড় তারকা, সেই সময়ে তাদের সঙ্গে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছি। হুমায়ুন ফরিদীর বিপরীতেও অভিনয় করেছি। ক্যারিয়ার নিয়ে আমি সুখী বলতে পারেন। সুন্দরভাবে ফ্যামিলি ঠিক রেখে অভিনয় করে আসছি। এমন না যে সংসারে সময় দিচ্ছি না। সংসার, সন্তান সবকিছু করেই আমি ভালোভাবে অভিনয়ও করছি। এটা সবার ভালোবাসা এবং সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদ। একটা আনন্দময় জীবন পার করলাম এটাই বড় কথা। জীবন এমনই হওয়া উচিত। সুখ-দুঃখ থাকবেই, কিন্তু আনন্দও থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com