সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:০২ অপরাহ্ন

লিওনেল মেসিকে নিয়ে দুঃসংবাদ দিল মিয়ামির কোচ

২০১৪ সালে পাওয়া মাংসে পেশির সেই চোট যে এতটা ভোগাবে সেটা বোধ হয় লিওনেল মেসি নিজেও কল্পনা করেননি। আর্জেন্টাইন তারকার ক্যারিয়ারে এখন বড় একটা অংশজুড়ে অবস্থান করছে এই ইনজুরি। ইনজুরির কারণে প্রায়ই মিস করছেন ম্যাচ। ইউরোপে থাকাকালে এমন চোটের তীব্রতা খুব একটা ছিল না। কিন্তু প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন ছেড়ে এমএলএসের ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে আসার পরেই চোট যেন মাত্রা ছাড়ায়।

মেসির ঘন ঘন ইনজুরির পেছনে বড় কারণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লিগের ঠাসা সূচির প্রভাব। লিগ ম্যাচ, কনকাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স, লিগস কাপ মিলিয়ে ঘন ঘন মাঠে নামতে হচ্ছে আর্জেন্টাইন সুপারস্টারকে। এতেই বিপদ বাড়ছে মেসির, ইন্টার মিয়ামির, আর্জেন্টিনার। মিস করছেন অনেক ম্যাচ। মেসি মিস করছেন জাতীয় দলের সর্বেশেষ দুই ম্যাচও। ধারণা করা হচ্ছিল দ্রুতই মাঠে দেখা যাবে মেসিকে। কিন্তু এবার মেসিকে নিয়ে দুঃসংবাদ দিল মিয়ামি।

আর্জেন্টাইন ফুটবলের বিশ্বস্ত গণমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস জানিয়েছে, লিওনেল মেসির চলতি সপ্তাহেও ফেরার সম্ভাবনা নেই। এমনকি পরের সপ্তাহেও তাকে পাওয়া যাবে- এমন নিশ্চয়তাও নেই ক্লাবের পক্ষ থেকে।

লিওনেল মেসির বর্তমান ক্লাব ইন্টার মায়ামির সহকারী কোচ হ্যাভিয়ের মোরালেস দলের নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে আর্জেন্টাইন তারকার সবশেষ অবস্থা নিয়ে আলাপে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘মেসি এখন আমাদের ফিজিওথেরাপিস্টের সঙ্গে কাজ করছে, আগামীকালের ম্যাচে থাকছে না সে।’

এর আগে জানা গিয়েছিল, এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে কনকাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপের ম্যাচে থাকতে পারেন বিশ্বকাপজয়ী এই আর্জেন্টাইন তারকা ফুটবলার। কিন্তু মেসির শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা করে এখন আর সেই নিশ্চয়তাও দিতে পারছেন না তিনি। মোরালেস বলেন, ‘সে আমাদের মেডিকেল স্টাফের অধীনেই আছে। আমরা চেষ্টা করব পরের ম্যাচে তাকে যেন পাওয়া যায়।’

মার্চের ১৩ তারিখ ন্যাশভিলের বিপক্ষে কনকাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপের ম্যাচে ডান পায়ের হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান মেসি। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ৫ মিনিট খেলেই উঠে যেতে হয় তাকে। এরপর থেকেই মাঠের বাইরে মেসি। এরই মাঝে মেসিকে ছাড়াই দুটি ম্যাচ খেলেছে মিয়ামি। মেসিবিহীন মিয়ামির সেই রেজাল্ট আশা জাগানিয়া নয়। ডিসি ইউনাইটেডের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচে ৩-১ গোলে জয় পেলেও নিউইয়র্কের কাছে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারতে হয়েছে মায়ামিকে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com