রবিবার, ১৬ Jun ২০২৪, ০৮:৫৫ অপরাহ্ন

অস্তিত্ব জানান দিতেই বিএনপির লিফলেট বিতরণ: ওবায়দুল কাদের

আজ শনিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে অনেকটা উপহাস করে বলেন, ‘গণঅভ্যুত্থান থেকে তারা লিটলেট বিতরণ কর্মসূচিতে নেমে এসেছে। এবার বুঝুন তাদের অবস্থা।’

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিদেশি শক্তি নয়, নিয়ন্ত্রণ করতে পারে দেশের জনগণ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা কোনো বিদেশি শক্তির পরোয়া করেন না, তিনি পরোয়া করেন বাংলাদেশের জনগণকে।’

আজ শুক্রবার তেজগাঁওয়ের ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

প্রতিবেশী দেশ আওয়ামী লীগকে নিয়ন্ত্রণ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মির্জা ফখরুল বলে আমাদের নাকি প্রতিবেশী দেশ নিয়ন্ত্রণ করে। ফখরুল সাহেব শেখ হাসিনাকে কেউ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। আমাদের নিয়ন্ত্রণ করে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্মের চেতনা, মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ, মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি জয় বাংলার চেতনা। আমাদের দেশি-বিদেশি কোনো শক্তি নয়, নিয়ন্ত্রণ করে বাংলাদেশের জনগণ। আমাদের নিয়ন্ত্রণ করে বাংলাদেশের সংবিধান। এই সংবিধানের বাইরে আমরা যাব না।’

কাদের বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ২৮ অক্টোবর পালিয়ে গিয়ে এখন বেসামাল হয়ে প্রতিনিয়ত আওয়ামী লীগকে আক্রমণ করছে। আমি তাকে বলতে চাই বন্দী মুক্তির কথা বলেন, লজ্জা করে না? জিয়াউর রহমান আওয়ামী লীগসহ অন্যান্য দলের ৬২ হাজার নেতাকে জেলে রেখেছিল। আপনাদের কতজন জেলে আছে? ৩ হাজার নেতাকর্মী ও সরকারি অফিসারদের গুম করেছিলেন জিয়াউর রহমান।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘অনেকে বলেন বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা বিরোধীদের ক্ষমা করে দিয়েছিলেন, এটা সত্যি নয়। ১১ হাজার স্বাধীনতাবিরোধী কারাগারে ছিল, জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসে এদের মুক্তি দিয়েছিল। যার মধ্যে মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত ছিল ৭১৩ জন। এদের মুক্তি দিয়েছিল জিয়াউর রহমান। এই ইতিহাস ভুলে গেছেন? কথায় কথায় আজকে বলেন, কারাগার। আমি কী মিথ্যা বলেছি? জিয়াউর রহমান কী করেছিল এর প্রমাণ আছে।’

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমরা যেন নিজেদের শত্রু নিজেরা না হই। আপন ঘরে যাদের শত্রু তাদের শত্রুতা করার জন্য বাইরের শত্রুর দরকার নেই। মুখে বলবেন বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা। তাদের জীবন থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে।’

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com