চালকবিহীন গাড়িতে হোম ডেলিভারি

চালকবিহীন গাড়িতে হোম ডেলিভারি

0

তথ্য ও প্রযুক্তি ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : প্রযুক্তির কল্যাণে মানুষের জীবনে এসেছে গতি। কিন্তু এই গতিতেই চূড়ান্ত পর্যায়ে নিয়ে যেতে এবার স্বচালিত হোম সার্ভিসের চিন্তা করছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তিবিদরা। এরই ধারাবাহিকতায় দেশটির একটি কোম্পানি পরীক্ষামূলক রাস্তায় স্বচালিত গাড়ি চালানোর অনুমতি পেয়েছে। স্বচালিত এ গাড়িতে নেই কোনো স্টিয়ারিং হুইল, নেই ব্রেক কষার কোনো প্যাডেল। এমনকি কোনো সাইডমিররও নেই। নিউরো নামের কোম্পানিটি এ গাড়িটি তৈরি করেছে হোম ডেলিভারি সার্ভিস চালু করতে।

গাড়িটির নাম দেওয়া হয়েছে আর-টু। এটি টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হিউস্টনে পরীক্ষা করা হবে। চালকবিহীন এ গাড়িতে মানুষের বসার বা চালানোর কোনো ব্যবস্থা রাখা হয়নি। এর আগে চালকবিহীন যতো গাড়ি চালু করা হয়েছে তাতে এমন ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, যাতে দরকার হলে একজন চালক গাড়িটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে পারেন। আর-টু সেদিক থেকে একেবারেই ব্যতিক্রম। তবে যুক্তরাষ্ট্রের পরিবহনমন্ত্রী এলেইন চাও বলেছেন, যেহেতু গাড়িটির সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় মাত্র ২৫ মাইল, তাই এ ধরনের নিয়ম এই গাড়িটির ক্ষেত্রে প্রয়োগ করার কোনো মানে হয় না। কিন্তু ডিপার্টমেন্ট অব ট্রান্সপোর্ট বলেছে, এটি যখন রাস্তায় পরীক্ষামূলক চালানো হবে, তখন এর ওপর অনেক বেশি নজরদারির ব্যবস্থা থাকবে।

তিনি বলেন, এই আর-টু কখন কোথায় পরীক্ষা করা হচ্ছে তা সেখানকার লোকজনকে জানাতে হবে। নিউরোর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ডেভ ফারগুসন একটি ব্লগ পোস্টে জানিয়েছেন, চালকবিহীন গাড়িটির ক্ষেত্রে এ সিদ্ধান্তটি একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। গাড়ি চলাচলের বিদ্যমান নিয়মকানুনের অবশ্যই আধুনিকায়ন দরকার, কারণ কোনো চালক বা আরোহী ছাড়া একটি গাড়ি রাস্তায় চলবে, এটা কখনো আমাদের কল্পনাতেই ছিল না। কাজেই নিরাপদে ব্যবহারের জন্য স্বচালিত গাড়ির প্রযুক্তি নিয়ে যথেষ্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে। সব থেকে বড়ো কথা স্বচালিত গাড়িতে হোম সার্ভিস চালু হলে ডেলিভারি চার্জও কমে আসার সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে। —বিবিসি

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন