শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১১:২২ অপরাহ্ন

টেস্ট পরিসংখ্যানে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ

এ পর্যন্ত ৮টি দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ব্যাটিং-বোলিং কিংবা দলীয় অর্জনের পরিসংখ্যান নিয়ে এবারের প্রতিবেদনে থাকছে বিস্তারিত-

দুই বছর আগে সবশেষ দ্বিপাক্ষিক টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল উইন্ডিজরা। মূল শক্তির দল নিয়েও টাইগারদের বিপক্ষে প্রতিরোধ গড়তে পারেনি তারা। সাকিব হয়েছিলেন সিরিজ সেরা। আর ৫৮ রানে ৭ উইকেট নিয়ে মিরাজ টেস্ট ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার তাদের বিপক্ষে। আবারও সেই প্রতিপক্ষ ঘরের উঠানে। এবারও ফেভারিট বাংলাদেশ। আন্ডারডগ উইন্ডিজ।

অথচ তাদের বিপক্ষে টেস্ট জয়ের জন্য বাংলাদেশের অপেক্ষা করতে হয়েছে ৯ বছর। এ পর্যন্ত দু’দল ৮টি সিরিজ খেলেছে। দুটি বাংলাদেশ আর ৬টি উইন্ডিজ জিতেছে। ১৬ টেস্টের মধ্যে বাংলাদেশ জিতেছে ৪টিতে আর ক্যারিবীয়দের জয় ১০টিতে।

দুই দলের বোলিংয়ের পরিসংখ্যানে সবার ওপরে সাকিব আল হাসান। ১০ টেস্টে নিয়েছেন সর্বোচ্চ ৪৬ উইকেট। উইন্ডিজের বিপক্ষে এক হিসেবে বাংলাদেশিদের মধ্যে বেশি সফল মেহেদী মিরাজ। ৪ টেস্টে নিয়েছেন ২৫ উইকেট। সাকিবের মতো মিরাজও তিনবার নিয়েছেন ৫ উইকেট। সাকিব মিরাজের সাথে একাদশে তাইজুলের অন্তর্ভুক্তি হলে ক্যারিবীয়দের ব্যাটিং লাইনআপ কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হবে। এমনটা বলছে পরিসংখ্যান।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের বিপক্ষে ক্যারিবীয়দের সেরা পাঁচ উইকেট শিকারির মধ্যে শীর্ষে কেমার রোচ। ৮ টেস্ট ৩৩ উইকেট। ৩ বার নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। এরপর যারা আছেন উইকেট শিকারের তালিকায় তাদের কেউই নেই বর্তমান দলে। তাই কেমার রোচকে সাবধানে খেললে বাংলাদেশের স্কোর বোর্ড হতে পারে সমৃদ্ধ।

উইন্ডিজদের বিপক্ষে টেস্টে সেরা পাঁচ রান সংগ্রাহকের তালিকার তিনজনই আছেন বাংলাদেশ দলে। তামিম-মুশফিকের ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সেঞ্চুরি থাকলেও, নেই সাকিবের। চট্টগ্রামে খেলা বলেই অধিনায়ক মুমিনুলের দিকে থাকবে বাড়তি প্রত্যাশা।

অন্যদিকে, ক্যারিবীয়দের সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যানের মধ্যে যে একজন আছেন তালিকায়। তিনি বর্তমান দলটির অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রাথওয়েট। তার ক্যারিয়ার সেরা ডাবল সেঞ্চুরির ইনিংস বাংলাদেশের বিপক্ষে। চন্দরপল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নেই। ব্রাভো গেইলরা টেস্ট খেলেন না।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com