বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

হ্যাকারদের ধারাবাহিক আক্রমণ স্বাস্থ্যসেবা খাতে

গত এক বছরে স্বাস্থ্যসেবা খাতে অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় বেশি আক্রমণ করেছে হ্যাকাররা। এক বছর আগে এফবিআইর বিশ্লেষণ প্রকাশের পর এমন খবর জানা যাচ্ছে। টেক রাডার প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যে সাইবার অপরাধীরা এখন স্বাস্থ্যসেবাসংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর ওপর বেশি মনোযোগ দিচ্ছে।

টেক রাডারের ওই নিবন্ধ অনুসারে, হ্যাকাররা সংবেদনশীল রোগীর ডাটা দ্রুত এবং সফলভাবে বিক্রি করতে পারে। স্বাস্থ্যডাটার তাৎপর্য এবং গোপনীয়তা থাকায় এগুলোকে সবচেয়ে বেশি লক্ষ্য করে তুলেছে হ্যাকাররা। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, চুরি করা তথ্য রোগীর ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিদের কাছে পাঠিয়ে খুব সহজে অর্থ হাতিয়ে নেয়া যায়।

টেক রাডার আরো উল্লেখ করেছে যে সামান্য ভুলে স্বাস্থ্যসেবা খাত অকার্যকর হয়ে উঠতে পারে। বিশেষ করে এর ব্যবস্থাপনায় দুর্বলতা থাকলে জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটাতে পারে। সচেতনতার অভাবে সাইবার আক্রমণ ঘটলে চিকিৎসা ব্যবস্থা আরো ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। ঝুঁকি হ্রাস করতে চাইলে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই।

টেক রাডারের গবেষণা প্রতিবেদনটি এ খাতের দুর্বলতা কমনোর সুপারিশ করেছে। মেডিকেল ডিভাইসগুলোকে ব্যবহারকারী এবং তৃতীয় পক্ষের (পিতামাতা এবং চিকিৎসক) মধ্যে শেয়ার করার অনুমতি, ডাটা সংগ্রহ, প্রয়োজন মনে না করলে নিষেধ এবং নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে নীতিমালা তৈরি করা জরুরি বলে সুপারিশ করা হয়েছে। অস্পষ্ট নিরাপত্তা নির্দেশিকা এ খাতে ঝুঁকির একটা কারণ।

শেয়ার করা নেটওয়ার্কও নিরাপত্তাকে নাজুক করে দিতে পারে। ২০১৪ সালে রয়টার্সের একটি প্রতিবেদনের দিকে পাঠকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, হ্যাকাররা সাধারণত স্বাস্থ্য বীমাসংক্রান্ত রোগীর তথ্য এবং মেডিকেল রিপোর্টগুলোকে লক্ষ্য করেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com