বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

গাজায় ইসরাইলি বাহিনী ২০ হাজার মানুষকে হত্যা করেছে

দখলদার ইসরাইলি বাহিনী টানা বিমান থেকে বোমা বর্ষন করে অবরুদ্ধ গাজাকে কবরস্থানে পরিণত করেছে। হাজার নারী ও শিশুকে হত্যা করেছে। বাস্তুহারা করেছে প্রায় ২০ লাখ মানুষকে। ইতোমধ্যে হত্যা করেছেন ২০ হাজারের বেশি মানুষকে। হাসপাতালগুলোকে গুড়িয়ে দিয়েছে। বন্ধু করে দিয়েছে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির লাইন। প্রবেশ করতে দিচ্ছে না কোনো ত্রাণ সামগ্রী।

এদিকে ৭ অক্টোবর থেকে গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২০ হাজার ছাড়িয়েছে এবং আরো ৫২ হাজার ৫৮৬ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, অন্যদিকে পশ্চিম তীরে ইসরাইলি হামলায় নিহত ও আহতের সংখ্যা যথাক্রমে ৩০১ ও ৩ হাজার ৩৬৫ জনে পৌঁছেছে।

দক্ষিণ গাজা স্ট্রিপ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল-কেদরা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, গাজায় গত ২৪ ঘণ্টায় ইসরাইলের অভিযানে ২১৪ ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৩০০ জন আহত হয়েছে। এছাড়া বিপুল সংখ্যক আহত এখনো ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে আছে।

আল-কেদরা ইসরাইলি সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলে হাসপাতাল ধ্বংস করে তাদের সেবা ব্যাহত করার অভিযোগ করেছে।

তিনি বলেন, এ হামলার ফলে ৮ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হবে এবং হাজার হাজার আহত, গর্ভবতী নারী, শিশু এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগে ভোগা রোগীরা স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হবে।

আল-কেদরা জোর দিয়ে বলেন, দক্ষিণ গাজার হাসপাতালগুলো ‘বিপুল আহতদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে সামর্থহীন এবং সীমিত ক্লিনিকাল, চিকিৎসা ও মানবিক পরিষেবা দিয়ে রোগীদের জীবন বাঁচানোর চেষ্টা করছে।’

ইসরাইল কর্তৃপক্ষের তথ্যমতে, ৭ অক্টোবর দেশের দক্ষিণাঞ্চলে হামাসের হামলার পর গাজা উপত্যকায় সর্ববৃহৎ যুদ্ধ শুরু করেছে ইসরাইল। ওই হামলায় প্রায় ১২০০ ইসরাইলি নিহত হয়েছিল।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com