সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৩২ অপরাহ্ন

‘গাজায় হিরোশিমা–নাগাসাকির মতো বোমা ফেলা উচিত’

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষ পর্যায়ে জাপানের নাগাসাকি ও হিরোশিমায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পারমাণবিক বোমা ফেলেছিল। তিনি সেই উদাহরণ টেনে এ কথা বলেন। টিম ওয়ালবার্গের এহেন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে প্রগতিশীল রাজনৈতিক মহল। একজন সাবেক খ্রিষ্টান যাজক হয়ে এমন মন্তব্য করতে পারেন কিনা,  এ নিয়ে অনেকে সন্দেহ পোষণ। তারাও গাজায় গণহত্যা ও তার বক্তব্যের নিন্দা জানিয়েছেন।
তার এ বক্তব্যর ভিডিও এক্সে (সাবেক টুইটার) ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে একজন কমেন্ট করেছেন, যিশু খ্রিষ্টও এমনটাই করতেন তাই না! গাজায় ত্রাণ সহায়তা পাঠানোর বিরোধিতা করে ওয়ালবার্গ বলেছেন, গাজায় ত্রাণ সহায়তার জন্য আমাদের আর একটি পয়সাও ব্যয় করা উচিত নয়। এই পয়সা উল্টো ইসরাইলের জন্য ব্যয় করা উচিত। কেননা পৃথিবীর যেকোনো স্থানে, যেকোনো ইস্যুতে ইসরাইল যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় মিত্র।
তবে রোববার এক বিবৃতিতে ওয়ালবার্গ বলেছেন, মিডিয়া তার মন্তব্যকে ভুলভাবে উপস্থাপন করেছে। ইসরাইলকে ‘যত দ্রুত সম্ভব’ জয়ী করা উচিত এ বিশ্বাসে তিনি অনড় বলেও জানান। ওয়ালবার্গের বক্তব্য ছড়িয়ে পড়লে কাউন্সিল অন আমেরিকান–ইসলামিক রিলেশনস (কাইর) একটি বিবৃতিতে কংগ্রেসম্যানের বক্তব্যকে ‘গণহত্যার স্পষ্ট আহ্বান’ আখ্যা দিয়ে নিন্দা জানিয়েছে।
কাইরের নির্বাহী পরিচালক দাউদ ওয়ালিদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, সমস্ত আমেরিকানের উচিত ওয়ালবার্গের বক্তব্যর নিন্দা করা, যারা মানুষের জীবন এবং আন্তর্জাতিক আইনকে মূল্য দেয়। ওয়ালবার্গ পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের পক্ষে কথা বলা অস্বীকার করে বলেন, যত দ্রুত ইসরাইল ও ইউক্রেন যথাক্রমে হামাস ও রাশিয়াকে পরাজিত করবে, তত বেশি নিরপরাধ মানুষের প্রাণ বাঁচবে।  হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরাইল ও ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের মধ্যে চলা এ যুদ্ধে এই অঞ্চলে কমপক্ষে ৩২ হাজার ৭০৫ জন নিহত হয়েছে।
এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় কমপক্ষে ৮২ জন নিহত হয়েছেন এবং ৭ অক্টোবর হামাস যোদ্ধারা ইসরাইলে হামলা চালানোর পর থেকে ইসরাইলি হামলায় গাজা উপত্যকায় মোট ৭৫ হাজার ১৯০ জন আহত হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com