বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০২৪, ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
‘কোটাবিরোধী আন্দোলনকে রাষ্ট্রবিরোধী আন্দোলনে রূপ দেওয়ার অপচেষ্টা চলছে’ রপ্তানি পণ্যে নতুনত্ব আনার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ঢাবিতে ৩ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলছে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইতিহাস জানে না, তাই এ স্লোগান দিতে তাদের লজ্জা হয় না: প্রধানমন্ত্রী ভারতে উপনির্বাচনে ‘ইন্ডিয়া’ জোটের জয়জয়কার সীমান্ত থেকে দেশের অভ্যন্তরে ১০ মাইল বিজিবির সম্পত্তি ঘোষণাসহ ৪ পরামর্শ হাইকোর্টের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর বিষয়ে মিয়ানমার ইতিবাচক সময় পেলে ফুটবল খেলা দেখি : প্রধানমন্ত্রী কোটা ইস্যুতে কাউকে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে দেবে না ছাত্রলীগ রোববার গণপদযাত্রা, রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি দেবে কোটা আন্দোলনকারীরা

উত্তর প্রদেশে মাদরাসা নিষিদ্ধের রায় সুপ্রিম কোর্টে স্থগিত

ভারতের উত্তর প্রদেশের প্রায় ১৭ লাখ মাদরাসা ছাত্রদের জন্য একটি বড় স্বস্তি এনে দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। গতকাল শুক্রবার এলাহাবাদ হাইকোর্টের ইউপি বোর্ড অব মাদারসা শিক্ষা আইন ২০০৪ বাতিল করার আদেশ স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। এ আদেশের ফলে প্রদেশে প্রায় ১৬ হাজার মাদরাসা ২০০৪ সালের আইনের অধীনে কাজ চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি পেল। খবর বাংলানিউজের।

ভারতের প্রধান বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বে একটি বেঞ্চ বলেছে হাইকোর্টের সিদ্ধান্তটি প্রাথমিকভাবে সঠিক নয়। যে বিষয়ে ইউপি এবং কেন্দ্রীয় সরকার এবং মাদরাসা বোর্ডকে নোটিশ জারি করেছে। হাইকোর্ট গত মাসে ধর্মনিরপেক্ষতার নীতি লঙ্ঘনের জন্য ২০০৪ সালের আইনটিকে ‘অসাংবিধানিক’ ঘোষণা করেছেন। পরে এ বিষয়ে সরকারকে মাদরাসা শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যবস্থায় স্থান দেওয়ার নির্দেশ দেন। সুপ্রিম কোর্ট গতকাল শুক্রবার এটিকে স্থগিত করে বলেছেন, মাদরাসা বোর্ডের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলো ধর্মনিরপেক্ষতাকে প্রভাবিত করবে না। প্রধান বিচারপতি বলেন, হাইকোর্ট, আইনের বিধানগুলো বাতিল করে, শিক্ষার্থীদের স্থানান্তরের নির্দেশ দিয়েছেন। এটি ১৭ লাখ শিক্ষার্থীকে প্রভাবিত করবে। আমরা মনে করি শিক্ষার্থীদের অন্য স্কুলে স্থানান্তরের নির্দেশনা বৈধ ছিল না। প্রধান বিচারপতি বলেন, যে বিষয়গুলো উত্থাপিত হয়েছে সেগুলোর প্রতিফলন ঘটানো হয়েছে। জুলাইয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহে বিষয়টি পরবর্তী শুনানির জন্য ধার্য করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com