রবিবার, ১৬ Jun ২০২৪, ১০:১৪ অপরাহ্ন

জাতিসংঘে গাজায় যুদ্ধবিরতির মার্কিন প্রস্তাব পাস, কিন্তু বাস্তবায়ন হবে কী?

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে সোমবার গাজায় যুদ্ধবিরতির মার্কিন প্রস্তাব ১৪ ভোটে পাস হয়েছে। তবে মার্কিন এ প্রস্তাবে ভোট দেয়নি রাশিয়া, ভেটোও দেয়নি। মার্কিন এ প্রস্তাবে একটি ‘পূর্ণ ও সম্পূর্ণ যুদ্ধবিরতি’, হামাসের হাতে আটক জিম্মিদের মুক্তি, নিহত জিম্মিদের দেহাবশেষ ফেরত এবং ফিলিস্তিনি বন্দি বিনিময়ের শর্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি করা খসড়া প্রস্তাবে তিনটি পর্যায় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

প্রথম ধাপে জিম্মি-বন্দি বিনিময়ের পাশাপাশি স্বল্পমেয়াদি যুদ্ধবিরতি কার্যকর। দ্বিতীয় ধাপে ‘শত্রুতার স্থায়ীভাবে অবসান’ এবং গাজা থেকে ইসরায়েলি সেনাদের পুরোপুরি প্রত্যাহারের কথা বলা হয়েছে। তৃতীয় ধাপে যুদ্ধের কারণে ব্যাপকভাবে ধ্বংস হওয়া গাজার জন্য বহু বছরের পুনর্গঠন পরিকল্পনার রয়েছে। প্রস্তাবটি পাস হওয়ার পর জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন দূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড নিরাপত্তা পরিষদের এই পদক্ষেপের প্রশংসা করে বলেন, ‘আজ আমরা শান্তির পক্ষে ভোট দিয়েছি।’ কিন্তু যুদ্ধবিরতির এই প্রস্তাবটি সত্যিই বাস্তবায়ন হবে কি না, তা নিয়ে অনেক প্রশ্ন রয়ে গেছে। এরই মধ্যে যুদ্ধবিরতির এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস।

এক বিবৃতিতে সংগঠনটি বলেছে, যুদ্ধবিরতির শর্তগুলো কীভাবে বাস্তবায়ন করা যায়, সে ব্যাপারে তারা মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছুক। তবে ইসরায়েলের পক্ষ থেকে এ যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে এখনও আনুষ্ঠানিক কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এর আগে আমেরিকা যদিও বলেছে, যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবটি মূলত ইসরায়েলের পক্ষ থেকেই জো বাইডেন দিয়েছেন। তবে নিরাপত্তা পরিষদে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হওয়ার পর জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের প্রতিনিধি রুট শাপির বেন-নাফতালি বলেন, ‘হামাস উপকৃত হয় এমন কোনও অর্থহীন আলোচনায় ইসরায়েল অংশ নেবে না।’ বিশ্লেষকেরা বলছেন, ইসরায়েলের প্রতিনিধির এ ধরনের বক্তব্য থেকে অনুমান করা যায়, তাঁরা যুদ্ধবিরতি কার্যকরের ব্যাপারে খুব একটা আগ্রহী নন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com