সোমবার, ১৫ Jul ২০২৪, ০৪:৫৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
ভারতে উপনির্বাচনে ‘ইন্ডিয়া’ জোটের জয়জয়কার সীমান্ত থেকে দেশের অভ্যন্তরে ১০ মাইল বিজিবির সম্পত্তি ঘোষণাসহ ৪ পরামর্শ হাইকোর্টের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর বিষয়ে মিয়ানমার ইতিবাচক সময় পেলে ফুটবল খেলা দেখি : প্রধানমন্ত্রী কোটা ইস্যুতে কাউকে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে দেবে না ছাত্রলীগ রোববার গণপদযাত্রা, রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি দেবে কোটা আন্দোলনকারীরা কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিভ্রান্ত করবেন না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েলে আবারও ৫০০ পাউন্ডের বোমা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী কোটা আন্দোলনকারীদের জন্য আদালতের দরজা সবসময় খোলা : প্রধান বিচারপতি

সংসদে হাত মিলিয়ে চমকে দিলেন মোদি-রাহুল

ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর বিরোধী দলীয় নেতা কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী। রাজনৈতিক কোনো ইস্যুতে একচুলও ছাড় দেন না একে অন্যকে। সদ্য অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচন ঘিরেও দেখা গেছে এই দুই নেতার চরম বাগযুদ্ধ। তবে সংসদে এবার ধরা পড়েছে মোদি-রাহুলের ভিন্ন এক ছবি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং সংসদের বিরোধী নেতা হতে যাওয়া রাহুল গান্ধী বুধবার (২৬ জুন) একসঙ্গে লোকসভার নবনির্বাচিত স্পিকার ওম বিড়লাকে স্বাগত জানিয়েছেন। এসময় হাতও মেলান তারা। এর মধ্য দিয়ে ১৮তম লোকসভায় একটি নতুন অধ্যায় রচিত হলো।
 
লোকসভার স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পর আসন থেকে উঠে এসে ওম বিড়লাকে অভিনন্দন জানান মোদি। একইভাবে ওম বিড়লাকে অভিনন্দন জানান রাহুলও। তখনই মুখোমুখি হন মোদি-রাহুল এবং হাসিমুখে করমর্দন করতে দেখা যায় এই দুই নেতাকে।

প্রসঙ্গত, বুধবার ছিল লোকসভার স্পিকার নির্বাচন। প্রায় ৪৮ বছর পর লোকসভার স্পিকার পদে শাসকদল ও বিরোধী জোটের মধ্যে লড়াই হলো। লড়াই হয় এনডিএ প্রার্থী ওম বিড়লা ও ইন্ডিয়া জোট প্রার্থী কে সুরেশের মধ্যে।

 
এদিন ওম বিড়লাকে স্পিকার করার জন্য লোকসভায় প্রস্তাব উত্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। লোকসভায় ২৯২টি আসন পেয়েছে এনডিএ জোট। ইন্ডিয়া জোটের আসনসংখ্যা ২৩৪। ইন্ডিয়া জোটের প্রার্থীকে সমর্থন করেছিল মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল পার্টিও। তবে শেষ পর্যন্ত কণ্ঠ ভোটে জয়ী হন ওম বিড়লা।

এদিকে, মা-বাবার পদাঙ্ক অনুসরণ করে গান্ধী পরিবারের তৃতীয় সদস্য হিসেবে সংসদে বিরোধী দলের নেতার পদে নিয়েছেন রাহুল গান্ধী। তার মা, সোনিয়া গান্ধী ১৯৯৯ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত এই দায়িত্বে ছিলেন এবং বাবা রাজীব গান্ধী, ১৯৮৯ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত বিরোধী দলের নেতা ছিলেন।

 
সূত্র: এনডিটিভি, এএনআই

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com