বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০২৪, ০৪:২৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
‘কোটাবিরোধী আন্দোলনকে রাষ্ট্রবিরোধী আন্দোলনে রূপ দেওয়ার অপচেষ্টা চলছে’ রপ্তানি পণ্যে নতুনত্ব আনার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ঢাবিতে ৩ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলছে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইতিহাস জানে না, তাই এ স্লোগান দিতে তাদের লজ্জা হয় না: প্রধানমন্ত্রী ভারতে উপনির্বাচনে ‘ইন্ডিয়া’ জোটের জয়জয়কার সীমান্ত থেকে দেশের অভ্যন্তরে ১০ মাইল বিজিবির সম্পত্তি ঘোষণাসহ ৪ পরামর্শ হাইকোর্টের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর বিষয়ে মিয়ানমার ইতিবাচক সময় পেলে ফুটবল খেলা দেখি : প্রধানমন্ত্রী কোটা ইস্যুতে কাউকে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে দেবে না ছাত্রলীগ রোববার গণপদযাত্রা, রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি দেবে কোটা আন্দোলনকারীরা

মার্তিনেসের জোড়া গোলে অজেয় থেকে গ্রুপ সেরা আর্জেন্টিনা

ইনজুরির কারণে একাদশে ছিলেননা মেসি। শাস্তির কারণে ডাক আউটে ছিলেননা কোচ স্কালোনি। কিন্তু মাঠের লড়াইয়ে তার কোন প্রভাব দেখা গেলনা। ঠিক আর্জেন্টিনা স্টাইলেই জিতল কোপা কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। লাউতারো মার্তিনেসের জোড়া গোলে গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচেই জিতে শেষ আটে আর্জেন্টিনা। আগের দুই ম্যাচে জিতেই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল আর্জেন্টিনা। তাই গতকালের ম্যাচটি ছিল কেবলই আনুষ্ঠানিকতার। আর সে আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচেও সহজ জয় পেল আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচ জিতে যে কেবলই অজেয় থাকল মেসির দল তা কিন্তু না। তিন ম্যাচে কোন গোলই হজম করললা আলভেসেলেস্তারা। তিন প্রতিপক্ষকে ৫ গোল দিয়েছে আর্জেন্টিনা। কিন্তু অক্ষত রাখল নিজেদের গোল পোস্ট। ফ্লোরিডার হার্ড রক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় গতকাল রোববার সকালে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ২–০ গোলে পেরুকে হারিয়েছে কোপা আমেরিকার শিরোপাধারীরা। একই সময়ে অনুষ্ঠিত অন্য ম্যাচে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন চিলির সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে কোয়ার্টার–ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে কানাডা। একটি করে জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তারা গ্রুপ রানার্স আপ। চিলির বিপক্ষে ম্যাচে আঘাত পাওয়া লিওনেল মেসিসহ বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দিয়ে ডি মারিয়ার নেতৃত্বে মাঠে নামে আর্জেন্টিনা। ম্যাচের শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণে একচ্ছত্র আধিপত্য করলেও পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না আর্জেন্টিনা। ২৬ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে লেয়ান্দ্রো পারেদেসের ফ্রি কিক লাফিয়ে ডান হাতের টোকায় আটকে দেন পেরুর গোলরক্ষক পেদ্রো গাইয়াসি। বিরতির আগ পর্যন্ত বলতে তেমন সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি আর্জেন্টিনা। বিরতির আগে পেরুর রক্ষণে চাপ বাড়াতে থাকে আর্জেন্টিনা। আসতে থাকে সুযোগও। ৪১ মিনিটে ডি মারিয়ার শট আটকে ফের পেরুর ত্রাতা গাইয়াসি। এরপর বাইলাইনের একটু ওপর থেকে গনসালো মনতিয়েলের কাট ব্যাকে জিওভান্নি লো সেলসোর নেওয়া জোরাল শট কোনোমতে পা দিয়ে ফেরান পেরুর গোলরক্ষক। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এগিয়ে যায় তিনবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ৪৭ মিনিটে ডি মারিয়ার কাছ থেকে ডি বক্সের মাথায় বল পেয়ে ডিফেন্ডারদের এড়িয়ে একটু সামনে গিয়ে আড়াআড়ি শটে জাল খুঁজে নেন মার্তিনেস। আসরে টানা তিন ম্যাচে গোল পেলেন ছন্দে থাকা এই স্ট্রাইকার। ৭২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ হাতছাড়া করেন পারেদেস। পেনাল্টি থেকে তার শট ফিরে পোস্ট কাঁপিয়ে। হেসুস কাস্তিয়োর হ্যান্ডবলে পেনাল্টি পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। ৮৪ মিনিটে চমৎকার একটি সুযোগ পেয়েছিলেন মার্তিনেস। পেরুর ডিফেন্ডারদের এড়িয়ে শটও নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পার করতে পারেননি পেরুর গোলরক্ষককে। চার মিনিট পর নিজেদের অর্ধ থেকে উঁচু করে বাড়ানো বলে আবার সুযোগ আসে ইন্টার মিলান স্ট্রাইকারের সামনে। এবার ঠান্ডা মাথায় জাল খুঁজে নেন তিনি। পেরুর দুই ডিফেন্ডারকে পেছনে ফেলে কোনাকোনি শটে বল জালে পাঠান মার্তিনেস। কোপা আমেরিকা কাপের এবারের আসরে মার্তিনেসের গোল হলো তিন ম্যাচে চারটি। এরপর বেশ আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে পেরু । তৈরি করেছিল কিছু সুযোগ। ৮৯ মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল তারা। হোসে রিভেরার ক্রসে ফ্রাঙ্কো হেড করেছিলেণ সেনেলাতো। কিন্তু তার সে শট এক পোস্টে লেগে আরেক পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে যায়। এররপ আর গোল করতে পারেনি পেরু। ফলে ২–০ গোলের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। আর টানা তিন ম্যাচে অক্ষত থাকে আর্জেন্টিনার জাল।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com