রোগ নির্ণয়ে আরো আধুনিক হবে এএফআইপি

রোগ নির্ণয়ে আরো আধুনিক হবে এএফআইপি

0

স্বাস্থ্য ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : রাজধানীর ‘আর্মড ফোর্সেস ইনস্টিটিউট অব প্যাথলজিকে (এএফআইপি) আরো অত্যাধুনিক করতে ২৪০ কোটি ২৭ লাখ টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে সরকার।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে এই প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সাংবাদিকদের বলেন, আর্মড ফোর্সেস ইনস্টিটিউট অব প্যাথলজি (এএফআইপি) হলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাধ্যমে পরিচালিত একটি প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষাগার ও রক্ত সঞ্চালন কেন্দ্র। চিকিৎসা ক্ষেত্রে অনন্য সাধারণ অবদানের জন্য ১৯৮৭ সালে এই প্রতিষ্ঠানটিকে ‘চিকিৎসাবিদ্যায় স্বাধীনতা পুরস্কার’ দেয়া হয়। বিদেশে মিশনে, তথা, জাতিসংঘ বাহিনীতে নিয়োজিত সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের কার্যক্রমেও সহায়তা করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। দেশে প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা এবং রোগ নির্ণয়ের আধুনিক পদ্ধতি প্রয়োগের সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি হবে ‘আর্মড ফোর্সেস ইনস্টিটিউট অব প্যাথলজির সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়ন’ প্রকল্পে।

এম এ মান্নান বলেন, ‘আর্মড ফোর্সেস ইনস্টিটিউট অব প্যাথলজির সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়ন’ প্রকল্পটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। একনেক সভায় প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্যাথলজীক্যাল পরীক্ষায় আধুনিক পদ্ধতি প্রয়োগের পথ সুগম করবে এএফআইপি। প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষায় এটা সবার জন্য অপেন থাকবে।’

‘প্রকল্পের মাধ্যমে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য ও দেশের অন্যান্য নাগরিকদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতের নিমিত্তে প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা এবং রোগ নির্ণয়ের আধুনিক পদ্ধতি প্রয়োগের সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করা। ২৪ ঘণ্টা সেবা দেয়ার লক্ষ্যকে সামনে রেখে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় নির্ধারিত মূল্যে ল্যাবরেটরি পরীক্ষাসহ অন্যান্য জনসাধারণকে অন্যান্য সেবা দেয়া হবে। সরকার ঘোষিত ফোর্সেস গোলের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রকল্পটি অবদান রাখবে। ২০১৯ সালের আগস্ট ২০২২ সালের জুন মেয়াদে প্রকল্পের কাজ শেষ করা হবে।

প্রকল্পটির প্রধান কার্যক্রমসমূহ হচ্ছে: প্রকল্পের আওতায় আধুনিক মেডিকেল যন্ত্রপাতি সংগ্রহ ও অন্যান্য সরঞ্জাম সংগ্রহ, ভবন ও অবকাঠামো নির্মাণ ও আসবাবপত্র সংগ্রহ করা হবে। আইসিটি ও নেটওয়ার্কিং যন্ত্রপাতি সংগ্রহ ইত্যাদি কাজ করা হবে।

প্রকল্পটি অনুমোদনের সময় একনেক সভায় উপস্থিত ছিলেন মেজর জেনারেল সুসানে গীতি, প্রকল্প পরিচালক ও ডেপুটি কমান্ডডেন্ট (এএফআইপি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আরিফ আহমেদ খান প্রমুখ।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

অনুরূপ খবর

0

0

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন