নর্দান কলেজে জঙ্গিবাদবিরোধী সেমিনার

নর্দান কলেজে জঙ্গিবাদবিরোধী সেমিনার

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে তরুণদের জাগ্রতকরণ ও জঙ্গিবাদবিরোধী কার্যক্রম হিসেবে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রায় দুই বছর ধরে রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সেমিনার করে আসছে সুচিন্তা ফাউন্ডেশন।

‘জাগো তারুণ্য রুখো জঙ্গিবাদ’শিরোনামে সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের জঙ্গিবাদবিরোধী কার্যক্রমের এবারের সেমিনারটির আয়োজন করা হয়েছিল রাজধানী কারওয়ান বাজারের নর্দান কলেজ ক্যাম্পাসে।

এবারের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মনির খান শিমুল। তিনি বলেন, ‘ছেলেবেলা মসজিদে নিয়মিত নামাজ পড়তে যেতাম। আমি বরাবরই মেধাবী ছিলাম। জুম্মার নামাজ শেষে এলাকার কয়েকজন বড় ভাইরা মিলে প্রতিযোগিতার আয়োজন করতেন। তাদের ধর্ম বিষয়ক প্রতিযোগিতায় পর পর দুই সপ্তাহেই আমি প্রথম হই। তৃতীয় সপ্তাহে আমার পারফরমেন্স খারাপ হওয়া স্বত্বেও আমাকে প্রথম পুরস্কার দেওয়া হয়। খটকা লাগে কেন আমাকে বিজয়ী করলো? উপস্থিত বত্তৃতায় আমার চেয়েও ভাল করেছিল দুইজন। তারপরও কেন আমাকে বিজয়ী করা হল? প্রশ্ন থেকে যায় মনে। পরবর্তীতে তারা আমাদের মাঝে নানাধরণের লিফলেট, ধর্মীয় মৌলবাদী বই বিতরণ করে। সে সকল লিফলেটে জিহাদি কথাবার্তা ছিল যা ইসলামের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। বাসায় জানানোর পর বাবা সেটি বুঝতে পেরে আমাকে সেখান থেকে ফিরিয়ে আনেন। ধর্মীয় মৌলবাদিরা এভাবেই ধর্মের মোড়কে তরুণদের জঙ্গিবাদের দিকে নিয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, জানতে হবে নিজের সম্পর্কে। কোরআন নাজিল হওয়ার সময়, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) কে বলা হয়েছিল- ‘ইকরা’ যা আরবি শব্দ। যার বাংলা হচ্ছে ‘পড়’। যে ‘ইকরা বিসমিকা’বলা হয়েছে তা আক্ষরিক অর্থ আসলে নিজের সম্পর্কে জানা। মানুষ যখন নিজের সম্পর্কে জানবে তখন নিজেকে ভালোবাসবে এবং অন্যের প্রতিও তার দায়িত্ব সম্পর্কে বুঝবে। যে মানুষ আত্মহত্যা করে সে কারো প্রতিই দায়িত্বশীল নয়। আর আত্মহত্যাতো ইসলাম বা আমাদের ধর্ম-ই অনুমোদন করে না।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন খাজা আবুল খায়ের সুন্নিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা নজরুল ইসলাম। তিনি কোরআন ও হাদিসের আলোকে শিক্ষার্থীদের জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সচেতন করে তুলেন। তিনি বলেন, ইসলাম ধর্মে বলা হয়েছে যার হাত থেকে অন্যের জান ও সম্পদ নিরাপদ থাকে সেই প্রকৃত মুমিন। ধর্মের কোথাও বলা হয়নি বিনা ওজরে মানুষ হত্যা করা যায়েজ বরং বলা হয়েছে- মানুষ হত্যা মহাপাপ।

জঙ্গিবাদের ভয়াবহ পরিণতি সম্পর্কে সামাজিক জাগরণ সৃষ্টির লক্ষ্যে সুচিন্তা ফাউন্ডেশন যে কাজ করে যাচ্ছে সে উদ্যোগের প্রশংসাও করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন নর্দান কলেজের প্রিন্সিপাল মো. রেজাউল করিম। পরবর্তীতে রবিউল ইসলাম রবি শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন উত্তরের মাধ্যমে ইসলাম ধর্মে জঙ্গিবাদ সমর্থন-অসমর্থন বিষয়ে তাদের মতামত জানেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ‘আজ সারাবেলা’র সম্পাদক জব্বার হোসেন।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন