নখের রোগ ও ভেঙে যাওয়া রোধে করণীয়

নখের রোগ ও ভেঙে যাওয়া রোধে করণীয়

0

লাইফস্টাইল ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : নখ ত্বকেরই অংশ। ত্বক যেমন কেরাটিন দিয়ে তৈরি, নখও শক্ত কেরাটিন দিয়ে তৈরি। নখে অনেক রোগ সৃষ্টি হতে পারে, তেমনি নখ দেখে অনেক রোগও চেনা যায়। ফুসফুস ও হার্টের অসুখ এবং রক্তস্বল্পতায় নখের অনেক পরিবর্তন হয়।

নখের বিভিন্ন ধরনের রোগ

নখে সাদা দাগ

ফাঙ্গাসের আক্রমণে নখে সাদা দাগ হতে পারে। নখের পাশের ত্বকে কোনো আক্রমণের কারণেও নখে সাদা দাগ হতে পারে। মাসখানেকের মধ্যে সাদা দাগ স্বাভাবিকভাবে চলে না গেলে ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

নখ ভেঙে যাওয়া

বেশি সাবান ব্যবহার, নেইল পলিশ ব্যবহার থেকে নখ ভেঙে যেতে পারে। অনেকের নখ মোটা হয়ে হলুদ হয় এবং খসে পড়ে। এটি এক ধরনের ছত্রাক দিয়ে হয়। এতে নখের সম্মুখ অংশ এবং পেছনের চামড়ার সঙ্গে লাগানো অংশ আক্রান্ত হয়।

নখে ক্যান্সার
নখে মেলানোমা নামক ক্যান্সার হতে পারে। এতে নখে লম্বা লম্বা কালো দাগ পড়ে।

নখের পেছনের অংশ ফুলে ব্যথা হওয়া, যারা খুব পানির সংস্পর্শে আসেন এবং রান্নাবান্না ও কাপড় কাচেন, বিশেষ করে গৃহবধূর এ সমস্যা বেশি হয়। একে প্যারোলাইকিয়া বলে। হঠাৎ করে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণেও হতে পারে, এন্টিফাঙ্গাল ট্যাবলেট ও মলম লাগাতে হয়।

ত্বকের ভেতর নখ ঢুকে গেলে

পায়ের বুড়ো আঙুলে বেশি হয়। এটি ব্যথাযুক্ত ও রোগীরা দীর্ঘসময় এতে ভোগেন, নখ ছোট করে মুড়িয়ে না কেটে নখ বড় রাখতে হবে এবং জুতা পরলে নখ যেন জুতায় না লাগে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

নখ ভেঙে যাওয়া রোধে করণীয়

নখ ভেঙে যাওয়ার সমস্যায় ভোগেন অনেকে। নখ ভালো ও দৃঢ় রাখার ক্ষেত্রে খাদ্যাভ্যাসে পুষ্টিকর খাবার রাখুন ও পাশাপাশি নখের যত্ন নিতে হবে।

নখ ভেঙে যাওয়া রোধে পানি যথাসম্ভব কম স্পর্শ করা, পর্যাপ্ত পানি পান করা, নখ সঠিক সাইজে কেটে রাখুন, কিউটিকল সুস্থ রাখুন এবং নখে উপকারী তেল ব্যবহার করতে পারেন। এ ছাড়া সমস্যা বেশি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন