সংসদ ভবন চত্বরে বৃক্ষ রোপন করেছেন মন্ত্রী-এমপিরা

সংসদ ভবন চত্বরে বৃক্ষ রোপন করেছেন মন্ত্রী-এমপিরা

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী (মুজিববর্ষ-২০২০) উপলক্ষে উপলক্ষে জাতীয় সংসদ ভবন চত্বরে বৃক্ষের চারা রোপন করেছেন মন্ত্রী-এমপিরা। আজ সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তারা বৃক্ষ রোপন করেন বলে সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বৃক্ষ রোপনে অংশ নেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ. কে. আব্দুল মোমেন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম রেজাউল করিম, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক, পরিবশে বন ও জলবায়ু উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের, নির্বাচিত সংসদ সদস্য বগুড়া-৩ আসনের মো. নূরুল ইসলাম তালুকদার, খুলনা-৪ আসনের আব্দুস সালাম মূর্শেদী, পটুয়াখালী-২ আসনের আ. স. ম. ফিরোজ, বরিশাল-৬ আসনের নাসরিন জাহান রতনা, ময়মনসিংহ- ৮ আসনের মো. ফখরুল ইমাম, কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সৈয়দা জাকিয়া নুর, কিশোরগঞ্জ-৩ আসনের মো. মুজিবুল হক, ঢাকা-৬ আসনের কাজী ফিরোজ রশীদ, ঢাকা- ১০ আসনের মো. শফিউল ইসলাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ৩ আসনের র অ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, কুমিল্লা-২ আসনের সেলিমা আহমাদ ও নোয়াখালী-৬ আসনের আয়েশা ফেরদাউস এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য শামসুন নাহার, রুমানা আলী, পারভীন হক সিকদার, সালমা ইসলাম, নাজমা আকতার ও রওশন আরা মান্নান।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, সমুদ্রের উচ্চতা যদি এক মিটার বাড়ে তাহলে পৃথিবীর প্রায় এক চতুর্থাংশ দেশ পানির নিচে চলে যাবে। ওই ঝুঁকি থেকে রক্ষায় বেশি করে গাছ লাগানো জরুরি। বঙ্গবন্ধুর আরাধ্য সাধনা ছিল বাংলাদেশকে সত্যিকার অর্থে সবুজ শ্যামলে চিরন্তন রূপ দেওয়ার। বঙ্গবন্ধু সেটা সমাপ্ত করে যেতে পারেননি। তার সুযোগ্য উত্তরসূরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের পরিবেশকে স্বাস্থ্য সম্মত এবং সবুজায়ন করার জন্য যে এক অসাধারণ কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন তারই অংশ হিসেবে আমরা বৃক্ষ রোপণ করছি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা মুজিববর্ষে এক কোটি গাছ লাগাবো। এসডিজি অনুযায়ি আমাদের ২৫ ভাগ জমিতে গাছ লাগানোর কর্মসূচী রয়েছে। ২০৩০ সালের আগেই এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে বলে আশাকরছি। তিনি বলেন, গাছ হচ্ছে জীবন। গাছ আমাদের অক্সিজেন দেয় এবং কার্ডনডাই অক্সাইড খেয়ে ফেলে। আমরা পৃথিবীর মধ্যে একটি অনুকরণীয় দেশ। কারণ আমাদের রয়েছে বিরাট সুন্দরবন। আমরা যদি সুন্দরবনকে মূল্যায়ন করতে পারতাম তাহলে ক্লাইমেট ফান্ড থেকে কয়েকশত বিলিয়ন ডলার আয় হতো। সে লক্ষ্যেই কাজ চলছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, মুজিববর্ষ- ২০২০ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত সারাদেশে এক কোটি বৃক্ষের চারা রোপন কর্মসূচির অংশ হিসেবে সংসদ ভবন চত্বরে গত ২৬ জুলাই বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। পর্যায়ক্রমে সকল সংসদ-সদস্যবৃন্দ সংসদ ভবন চত্বরে বৃক্ষরোপন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন