৬ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী করোনা আক্রান্ত ব্যাংক ম্যানেজার!

৬ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী করোনা আক্রান্ত ব্যাংক ম্যানেজার!

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : করোনাকালে আরো একটি মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী হলাম আমরা। এবার ৪২ বছরের করোনা পজিটিভ রোগী হাসপাতালের ছয় তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মোরাবাদে। পেশায় ব্যাংক ম্যানেজার ওই রোগী ভর্তি ছিলেন তীর্থঙ্কর মহাবীর মেডিক্যাল কলেজ ও রিসার্চ সেন্টারে।

মৃতের নাম রাজেশ, এলাকার গ্রামীণ ব্যাংকে ম্যানেজার ছিলেন তিনি। শহরের পুলিশ সুপার অমিত আনন্দ জানিয়েছেন, ‘রাজেশ হাসপাতালের ৬ তলা থেকে লাফ দিয়েছেন। গ্রামীণ ব্যাংকে ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতেন তিনি। গত ২১ জুলাই তাঁর কভিড-১৯ রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল। এর পর গত ২৫ জুলাই তাঁকে এই সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।’ প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, করোনার জেরেই হয়তো মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি।

কয়েকদিন আগে গত ২৬ আগস্ট অন্ধ্রপ্রদেশের এক কংগ্রেস নেতাও করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরই আত্মহত্যা করেছিলেন। কাডাপা জেলা কংগ্রেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন মৃত সিরিগিরেড্ডি গাঙ্গি রেড্ডি। চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছিলেন তিনি। পরে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে জানা যায় তিনি করোনা আক্রান্ত ছিলেন।

এর আগে গত ২৮ মে মাত্র ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে চেন্নাইয়েরই দু’টি হাসপাতালে আত্মহত্যা করেন দুই রোগী, দু’জনেই মধ্যবয়সী। প্রথম ঘটনাটি ঘটে শহরের স্ট্যানলি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তামিলনাড়ুর কৃষ্ণগিরি জেলার মাথুরের বাসিন্দা বছর পঞ্চাশের ওই ব্যক্তি। করোনার উপসর্গ নিয়ে দিন কয়েক আগেই তিনি চেন্নাইয়ের ওই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। চিকিত্‍‌সা চলাকালীন মঙ্গলবার তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

আত্মহত্যার অপর ঘটনাটি ঘটেছে চেন্নাইয়েরই ওমানদুরার মাল্টি-স্পেশ্যালিটি সরকারি জেনারেল হাসপাতালে। বছর ৫৭-র এক ব্যক্তি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। বুধবার ভোরে তাঁর লাশ উদ্ধার হয়। বাড়ি তামিলনাড়ুর রয়াপুরমে।

সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন