‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত যুদ্ধ জাহাজ সংস্কার করা হবে’

‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত যুদ্ধ জাহাজ সংস্কার করা হবে’

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : নারায়ণগঞ্জ বন্দরে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত যুদ্ধ জাহাজ পরিদর্শন করেছেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক।

বুধবার (১৮ নভেম্বর ) বিকেলে বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জে কর্ণফুলি ডকইয়ার্ডে তিনি যুদ্ধ জাহাজটি পরিদর্শন করেন।

যুদ্ধ জাহাজ পরিদর্শন শেষে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত জাহাজটি সংস্কার করে ভালো একটি স্থানে রাখা হবে। জাহাজটি আমাদের একটি নির্দশন। এটি সংরক্ষণের জন্য দুটি জায়গা পছন্দ করা হয়েছে। একটি হলো মাদারীপুরের এসপিটিআই প্রশিক্ষণকেন্দ্র ও অপরটি চাঁদপুরের নদীবন্দরের পাশে। যুদ্ধজাহাজটি এমনভাবে সংরক্ষণ করা হবে যাতে মুক্তিযুদ্ধকালে নেভাল কমান্ডোর ইতিহাস সারাবিশ্বের মানুষ জানতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটা জাদুঘর করা হবে। যা মানুষের কাছে আকর্ষণীয় হিসেবে থাকবে। ছয়টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। যাতে বিআইডাব্লিউটিএ, বুয়েট, চিফ আর্কিটেক্ট, নেভাল ও জাদুঘরের প্রতিনিধি থাকবে। এক মাসের মধ্যে তারা দুটি কাজ করবে। একটি হলো তারা স্থান চূড়ান্তকরণ করবেন এবং দ্বিতীয়ত এটাকে আর্ন্তজাতিক মানের হিসেবে গড়ে তুলতে কি কি ধরনের ডিজাইন করা যায় কি কি থাকতে পারে সে বিষয়ে তারা আইডিয়া দেবেন। আমরা বিদেশেও এ ধরনের বিভিন্ন সামগ্রী সংরক্ষণ করতে দেখি।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খান এমপি, বিআইডাব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সেলিম রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক-সার্কেল মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী, সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, বিআইডাব্লিউটিএর পরিচালক কাজী ওয়াকিল নওয়াজ, নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক শেখ মাসুদ কামাল, উপ পরিচালক মোবারক হোসেন, নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার ওসি শহীদুল ইসলাম প্রমুখ।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন