ইসরাইলের অবৈধ দুটি ইহুদি বসতি পরিদর্শনে পম্পেও

ইসরাইলের অবৈধ দুটি ইহুদি বসতি পরিদর্শনে পম্পেও

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, নগরকন্ঠ.কম : মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও তার মধ্যপ্রাচ্য সফরে বৃহস্পতিবার ফিলিস্তিনের অধিকৃত পশ্চিমতীরে এবং সিরিয়ার অধিকৃত গোলান মালভূমিতে গড়ে তোলা দুটি অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শন করেছেন।

জবরদখল করা ভূমিতে গড়া অবৈধ বসতি পরিদর্শ করার নজিরবিহীন এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানিয়েছেন ফিলিস্তিনিরা। খবর বিবিসির।

যে ভূমিতে তারা স্বাধীন-সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখে আসছেন, সেই ভূমি দখল করে গড়ে তোলা অবৈধ ইহুদি বসতিকে মার্কিন কর্তৃপক্ষের সমর্থন দেয়ায় চরম হতাশা প্রকাশ করেছেন ফিলিস্তিনিরা।

ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মাদ শাতাইয়্যাহ এবং ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন- হামাস পম্পেওর ওই সফরের তীব্র বিরোধিতা করেছে।

শাতাইয়্যাহ বলেন, পম্পেওর পরিদর্শনের মাধ্যমে অবৈধ ইহুদি বসতিগুলোকে বৈধতা দেয়া হচ্ছে এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের একটি ভয়ঙ্কর উদাহরণ তৈরি হবে।

মাইক পম্পেও বৃহস্পতিবার জর্দান নদীর পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড জবরদখল করে নির্মিত ইহুদি বসতি ‘স্যাগোট’ পরিদর্শন করেন।

এর পর তিনি সিরিয়ার গোলান মালভূমি দখল করে গড়ে তোলা আরও একটি অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শন করেন।

মার্কিন কনো মন্ত্রীর অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শনের ঘটনা এটিই প্রথম।

১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে জর্দান নদীর পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম আল-কুদস দখল করে নেয় ইহুদিবাদী ইসরাইল।

তখন থেকে এ পর্যন্ত দখলীকৃত ওই ভূখণ্ডে অন্তত ২৩০টি অবৈধ ইহুদি বসতি নির্মাণ করেছে তেল আবিব। এস বসতিতে বর্তমানে ছয় লাখের বেশি ইসরাইলি বসবাস করে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন