বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
নায়িকাদের ‘ফিগার’ নিয়ে যা বলতেন ডা. মুরাদ ইমনকে র‍্যাব কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে আইসিসির নভেম্বরের সেরার লড়াইয়ে নাহিদা ইইউ মন্ত্রীরা স্বল্প বেতনের কর্মীদের মজুরী সুরক্ষার ব্যবস্থা নিতে সম্মত কোভিড-১৯-এর চ্যালেঞ্জ ও প্রভাব মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশের সঙ্গে কোনো সমস্যা চায় না ভারত : মোমেন মুরাদ হাসান জেলা আওয়ামী লীগ থেকেও অব্যাহতি পাচ্ছেন : ওবায়দুল কাদের সমালোচনা সত্বেও পিএসজির খেলার ধরনে পরিবর্তন হবে না : পচেত্তিনো কিউলেক্স মশক নিধনে বিশেষ অভিযান শুরু ২২ ডিসেম্বর থেকে : মেয়র আতিক ভোলায় ডিজিটাল সেন্টারের ১১ বছর পূর্তি উদযাপন ও ই-সেবা ক্যাম্পেইন

অকাস চুক্তি নিয়ে বৈঠকে বাইডেন-ম্যাক্রোঁ

বিবিসি জানায়, অকাস চুক্তি নিয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে বিরোধের পর ম্যাক্রোঁর সঙ্গে বাইডেনের এটিই প্রথম মুখোমুখি সাক্ষাৎ। এ সপ্তাহে জি-২০ সম্মেলনের প্রাক্কালে বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের ধারাবাহিকতায় বাইডেন এ বৈঠক করলেন।

সম্প্রতি ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে চীনের হুমকি মোকাবেলার উদ্দেশ্য নিয়ে গত সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার নেতারা যৌথ এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে একটি নিরাপত্তা চুক্তির মধ্য দিয়ে ‘অকাস’ নামের ত্রিপক্ষীয় জোট গড়ার ঘোষণা দেন।

চুক্তির আওতায় অস্ট্রেলিয়াকে প্রথমবারের মতো পারমাণবিক শক্তিচালিত সাবমেরিন তৈরিতে প্রযুক্তি সরবরাহ করার কথা রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের। আর এখানেই ক্ষুব্ধ হয়েছে ফ্রান্স।

কারণ, অস্ট্রেলিয়া ১২টি সাবমেরিন পেতে ফ্রান্সের সঙ্গে চুক্তি করেছিল ২০১৬ সালে। অকাস চুক্তির পর ফ্রান্সের সঙ্গে  সেই সাবমেরিন চুক্তিটি বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়া। এতে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ফ্রান্স।

ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এর আগে এক মন্তব্যে বলেছিলেন, “যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ফ্রান্সের পিঠে ছোরা বসানোর মত কাজ করেছে।” এরপর এ নিয়ে বিরোধে যুক্তরাষ্ট্র এবং অস্ট্রেলিয়া থেকে রাষ্ট্রদূতও ফিরিয়ে নিয়েছিল ফ্রান্স।

পরে ফ্রান্স আবার তাদের রাষ্ট্রদূতকে ক্যানবেরায় ফেরত পাঠায় এবং ৩০-৩১ অক্টোবরে অনুষ্ঠেয় জি-২০ সম্মেলনকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে রোমে বৈঠকে করে সম্পর্ক মেরামত করে নেওয়ার আশা প্রকাশ করেন ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

সেই বৈঠকেই শুক্রবার সাক্ষাৎ হল দুই নেতার মধ্যে। ম্যাক্রোঁকে বৈঠকে বাইডেন বলেছেন, আমরা যা করেছি তা ছিল তালগোল পাকানো। যথেষ্ট বিচক্ষণতার সঙ্গে এটি করা হয়নি। আমি মনে করেছিলাম কিছু জিনিস ঘটেছে, যেটি আসলে ঘটেনি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com