সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৫:০৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
খালেদা জিয়া মুক্ত আছেন বলেই মুক্তভাবে চিকিৎসা নিতে পারছেন : আইনমন্ত্রী নতুন প্রজন্মের জন্য “চিরঞ্জীব মুজিব” এর মতো আরো চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান রাষ্ট্রপতির উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণের বিষয়ে জাতিসংঘে প্রস্তাব গ্রহণ মহান অর্জন : প্রধানমন্ত্রী ব্লু-ইকোনমির সুযোগ কাজে লাগাতে বিনিয়োগ করার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান জাপান সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে : জাপানের ভাইস-মিনিস্টার বিআরটিসির সব বাসেই শিক্ষার্থীরা অর্ধেক ভাড়া সুবিধা পাবে ‘ওমিক্রন’ প্রতিরোধে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির ৪ সুপারিশ ওমিক্রনে দক্ষিণ আফ্রিকায় মৃত্যুহার দ্বিগুণ হয়ে যাচ্ছে আর কোনো বিপদ ছাড়াই দিন শেষ করল বাংলাদেশ ‘ওমিক্রন’ নিয়ে দেশের সব প্রবেশপথে সতর্কবার্তা

কাটাখালী মেয়রকে আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতির সুপারিশ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় কাটাখালী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. আব্বাস আলীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠকে আব্বাসকে পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে অব্যাহতির সিদ্ধান্ত হয়।

একই সঙ্গে কেন দলীয় সদস্য পদ থেকে স্থায়ীভাবে তাঁকে বহিষ্কার করা হবে না, তা জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এর আগে, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য এবং বাধা দেয়ার অভিযোগে রাজশাহীর কাটাখালী পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়।

তাকে গ্রেপ্তার ও পদ থেকে অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগ ও মুক্তিযোদ্ধারা।

বুধবার সকাল থেকে বিক্ষোভে উত্তাল ছিল রাজশাহী। বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় কাটাখালী পৌরমেয়র আব্বাসের গ্রেপ্তার ও পদ থেকে অপসারণের দাবিতে এদিন সকালে সাহেববাজার জিরো পয়েন্ট মাবনবন্ধন করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা। এতে যোগ দেন বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

এছাড়া মেয়রের বিরুদ্ধে কাটাখালী পৌর এলাকাতেও বিক্ষোভ সমাবেশ করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

বিতর্কিত ওই মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার একদিন পর পৌর মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন বাদী হয়ে বোয়ালিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

এদিকে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থী ও অসাংবিধানিক মন্তব্যের জন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

ভাইরাল হওয়া ৫১ সেকেন্ডের ভিডিও যাচাই করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com