বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন

সারাদেশে ৫৫৫টি জয় ডিজিটাল সার্ভিস সেন্টার নির্মাণ করা হবে : পলক

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, সারাদেশে ৫৫৫টি জয় ডিজিটাল সার্ভিস এমপ্লয়মেন্ট এন্ড ট্রেনিং সেন্টার নির্মাণ করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তরুণ-তরুণীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে ইতোমধ্যে এই সেন্টার নির্মাণ কার্যক্রমকে অনুমোদন করে দিয়েছেন।
প্রতিমন্ত্রী আজ নাটোরের সিংড়া উপজেলাতে বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের মধ্যে ডিজিটাল পরিচয়পত্র এবং সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম সামিরুল ইসলাম অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।
প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, জয় ডিজিটাল সার্ভিস এমপ্লয়মেন্ট এন্ড ট্রেনিং সেন্টার তরুণ-তরুণীরা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে ই-কমার্স উদ্যোক্তা, আইটি ফ্রিল্যান্সার, ইন্টারপ্রেনার এবং মন্ত্রণালয়গুলোর সরকারি সেবা পেতে ওয়ান স্টপ সার্ভিস সল্যুশন সেন্টার হিসেবে কাজ করবে। সকল জেলায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। ১৩ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে শিক্ষার্থীরা হাতে-কলমে তথ্য প্রযুক্তির শিক্ষা গ্রহণ করছে। শিক্ষার্থীদের জন্যে তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষাকে পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য-২০৪১ সালের মধ্যে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর জ্ঞানভিত্তিক ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলে। জননেত্রী শেখ হাসিনার সততা, সাহসিকতা ও দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশের পরিচিতিকে শ্রমভিত্তিক অর্থনীতির দেশ থেকে প্রযুক্তি নির্ভর মেধাবী জাতির দেশের পরিচয়ে পরিচিত করতে চাই আমরা।
বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ এদেশের সূর্য সন্তান উল্লেখ করে পলক বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে জীবন বাজী রেখে তাঁরা দেশের জন্যে যুদ্ধ করে আমাদের স্বাধীন ভূখন্ড এনে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে মুক্তিযোদ্ধাগণ নিজেদের পরিচয় দিতে পারতেন না, তাদের চাকুরীর সুযোগ ছিলোনা। প্রধানমন্ত্রী তাদেরকে সম্মানীত করেছেন। মাসিক সম্মানী ভাতা বৃদ্ধি করে ২০ হাজার টাকা করে প্রদান করছেন। তাঁর যুগান্তকারী পদক্ষেপে সকল মুক্তিযোদ্ধাগণ স্মার্ট আইডি কার্ড পাচ্ছেন। এই কার্ড তাদের আতœমর্যাদা ও সম্মানের প্রতীক। বিভিন্ন দাপ্তরিক সেবা পেতে এই কার্ড সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com