লরির ধাক্কায় পিকআপের চালক ও ব্যবসায়ীর মৃত্যু, আহত ৫

লরির ধাক্কায় পিকআপের চালক ও ব্যবসায়ীর মৃত্যু, আহত ৫

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : ঢাকার ধামরাইয়ে বেপরোয়াগতির একটি লরির ধাক্কায় সবজিবোঝাই পিকআপভ্যানে থাকা কাঁচামাল ব্যবসায়ী ও চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন পথচারীসহ আরও ৫ জন। এদের মধ্যে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন একজনের অবস্থা খুবই আশংকাজনক বলে জানা গেছে। পিকআপ ভ্যানটি একদম চূর্ণ হয়ে গেছে।

স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ ওই ঘাতক লরিটি জব্দ করতে পারলেও চালক ও সহযোগী (হেলপার) পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। রোববার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ে ডাউপিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের পরিচয় পাওয়া গেছে। নিহত কাঁচামাল ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলার বরুন্ডি এলাকার মৃত নৈমুদ্দিনের ছেলে ও নিহত পিকআপ চালক মফিদুল মোল্লা রাজু (৩০) নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার লাহুরিয়া গ্রামের মশিউর রহমান মোল্লার ছেলে।

পুলিশ জানায়, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া এলাকা থেকে ওই সবজিবোঝাই পিকআপ ভ্যানটি সাভারের আশুলিয়া খানার বাইপাইল কাঁচামালের আড়তের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। বেলা ১১টার দিকে পিকআপ ভ্যানটি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ের ডাউটিয়া নামক এলাকায় পৌঁছলে তাদের সামনে থাকা একটি চলন্ত কাভার্ডভ্যান হঠাৎ গতিরোধ করে। এ সময় পেছন থেকে আসা ঢাকাগামী জননী এক্সপ্রেস অ্যান্ড পার্সেল সার্ভিসের (ঢাকা মেট্রো ট-২০-০৪১২) বেপরোয়াগতির একটি লরি সবজিবোঝাই ওই পিকআপ ভ্যানটিকে (ঢাকা মেট্রো ন-১৩-৯৫৫৯) সজোরে ধাক্কা দেয়।

এতে সবজিবোঝাই পিকআপটি সামনে থাকা কাভার্ডভ্যানের সাথে ধাক্কা লেগে দুমরে-মুচড়ে যায়। ফলে ঘটনাস্থলেই কাঁচামাল ব্যবসায়ী মো. হেলাল উদ্দিন মারা যান। এ সময় গুরুতর আহত অবস্থায় পিকআপ ভ্যানের চালক, হেলপার ও পথচারীসহ ৫ জনকে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পিকআপ ভ্যানের চালক মফিদুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয় জনতার সার্বিক সহযোগিতায় ঘাতক জননী এক্সপ্রেস অ্যান্ড পার্সেল সার্ভিসের লরিটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক ও সহযোগী পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আজাহারুল ইসলাম জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই পিকআপ ভ্যানে থাকা কাঁচামাল ব্যবসায়ী মো. হেলাল উদ্দিন মারা যান। এ সময় আহত ভ্যানচালক, হেলপার ও পথচারীসহ ৫ জনকে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হলে পরবর্তীতে চালক মফিদুল ইসলামের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

সাভার হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শ (এসআই) মো. মোসলেম উদ্দিন জানান, ঘাতক জননী এক্সপ্রেস অ্যান্ড পার্সেল সার্ভিসের লরিটি জব্দ করা হয়েছে। তবে এর চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপরে সড়ক দুর্ঘটনা আইনে ধামরাই থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন