হাত ভেঙে দিল দাদনদার, ১৫ হাজার টাকা সুদে নিয়ে ৩৩,৫০০ পরিশোধ, আরো...

হাত ভেঙে দিল দাদনদার, ১৫ হাজার টাকা সুদে নিয়ে ৩৩,৫০০ পরিশোধ, আরো ৪৫ হাজার দাবি!

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : বগুড়ার শাজাহানপুরে সুদের টাকা না দেয়ায় আবুল কালাম (৪৫) নামে এক রিকশাচালককে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় মেরে তার এক হাত ভেঙে দিয়েছে দাদনদার ফরহাদ হোসেন। এঘটনায় আবুল কালাম শাজাহানপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ এখনো কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

জানা যায়, উপজেলার খরণা ইউনিয়নের বাঁশবাড়িয়া উত্তরপাড়ার আবুল কালাম একই ইউনিয়নের উমরদীঘি গ্রামের দাদনব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেনের (৩৫) থেকে সুদে টাকা নিয়েছিলেন। সেই টাকা দিয়ে সবজি বিক্রি করে সংসার চালাতেন কালাম। করোনার কারণে সময় মত সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় দাদনব্যবসায়ী ফরহাদ গত সোমবার রাতে উমরদীঘি স্ট্যান্ডে আবুল কালামকে বেদম মারপিট করে। এসময় তার একটি হাত ভেঙে যায়।

আবুল কালাম জানান, ৫-৬ মাস আগে দাদনব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেনের কাছ থেকে মাসে শতকরা ৫০ টাকা হারে ১৫ হাজার টাকা সুদে নেন। এই টাকা নিয়ে উমরদীঘি হাটে সবজির ব্যবসা করতেন তিনি। সপ্তাহে মঙ্গল ও শনিবার প্রতি হাটে ৫০০ টাকা করে সুদের টাকা পরিশোধ করতেন। এভাবে ৩৩ হাজার ৫০০ টাকা শোধ করেছেন। কিন্তু করোনার কারণে ব্যবসা ভালো না হওয়ায় বর্তমানে তিনি ব্যবসা ছেড়ে রিকশা চালিয়ে সংসার চালান। মাস খানেক আগে থেকে সুদের টাকা দিতে না পারায় দাদনব্যবসায়ী ফরহাদ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিতে থাকেন। তিনি আরো ৪৫ হাজার টাকা দাবী করে। এমতাবস্থায় সোমবার সন্ধ্যায় রিকশা চালিয়ে বাড়ি ফেরার পথে উমরদীঘি স্ট্যান্ডে তাকে দাদনব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেন লাঠিসোটা দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে ডান হাত ভেঙে দেয়। টাকা পরিশোধ না করা পর্যন্ত মারপিট চলতেই থাকবে বলেও হুমকি দেওয়ায় ভয়ে ঘর থেকে বের হতে পারছেন না কালাম।

স্থানীয়রা জানান, ফরহাদ হোসেন অনেকের কাছে সুদে টাকা দিয়ে একটু এদিক সেদিক হলেই বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও ভয়-ভীতি দেখায়। সরকারদলীয় কর্মীর পরিচয়ে এলাকায় ত্রাসের সৃষ্টি করেছে ফরহাদ হোসেন। তার ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। আবুল কালামকে মারপিটের ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেওয়ার পরেও থানা পুলিশ কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

দাদনব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেন জানান, আবুল কালামকে ৩০ হাজার টাকা ধার দেওয়া হয়েছিল। সেই টাকা চাইলে বিভিন্ন লোকজনের মাধ্যমে তালবাহানা করে। তাকে সুদের উপর টাকা দেওয়া হয়নি।

শাজাহানপুর থানার ওসি আজিম উদ্দীন জানান, তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন