ঋণ আর সুদের জ্বালায় আত্মহত্যা করলেন হতদরিদ্র খোকন

ঋণ আর সুদের জ্বালায় আত্মহত্যা করলেন হতদরিদ্র খোকন

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে ঋণ পরিশোধ করতে না পেরে খোকন মিয়া (২২) নামে এক হতদরিদ্র শ্রমিক ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার সালটিয়া ইউনিয়নের রৌহা গ্রামের পশ্চিম পাড়ায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনায় নিহতের শ্বশুর তাইজু মিয়া রাতেই গফরগাঁও থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সালটিয়া ইউনিয়নের রৌহা গ্রামের (পশ্চিম পাড়া) সুলতান মিয়া বহু বছর আগে নিখোঁজ হন। তার স্ত্রী-কন্যাও মারা যান। সুলতান মিয়ার একমাত্র ছেলে খোকন মিয়াকে একই গ্রামের মামা তাইজু মিয়া নিজের বাড়িতে এনে লালন পালন করে বড় করেন এবং প্রায় এক বছর পূর্বে নিজের মেয়েকে খোকনের কাছে বিয়ে দেন। খোকন স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়িতেই থাকতেন ও শ্রমিক হিসাবে কাজ করতেন। বেশ কিছুদিন যাবত খোকন এলাকার লোকজনের কাছে ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েন। যা আয় উপার্জন করতেন তা ঋণ-সুদে চলে যেত। এ জন্য সংসারে অভাব অশান্তি লেগেই থাকতো। আবার আয় উপার্জন কম থাকায় ঋণও পরিশোধ করতে পারছিলেন না। সবসময় পাওনাদারদের চাপ ও সংসারের অভাবে খোকন মিয়া মানসিকভাবে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন।

এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে খোকন মিয়া প্রতিবেশী আব্দুল কাদিরের বসতবাড়ির জাম গাছের ডালে গলায় গামছা বেঁধে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করেন। খোঁজ পেয়ে স্থানীয় লোকজন থানায় খবর দিলে পুলিশ গভীর রাতে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ অনুকুল সরকার বলেন, এ ঘটনায় নিহতের শ্বশুর অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন