পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ

পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার চরকালীগঞ্জ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এতে দুজনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করার পর পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নের চরকালীগঞ্জ গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে পুলিশ সদস্য মনিরুল ইসলাম (২৬)। তাঁর সঙ্গে একই ইউনিয়নের রামকান্তপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে সুরভী আক্তারের দুই বছর আগে বিয়ে হয়। হঠাৎ করে বৃহস্পতিবার থেকে সুরভী নিখোঁজ হয়। এরপর শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশেই পুকুরে তাঁর লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে সুরভীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যার বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

এদিকে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের হাতে সুরভী খুন হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে স্থানীয়রা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশ সদস্য মনিরুলের বাড়িঘর ভাঙচুরের চেষ্টা করে। খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে।

সুরভীর স্বজন ও পরিবারের অভিযোগ, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। সুরভীর বাবা শফিকুল ইসলাম অভিযোগ করে জানান, পুলিশ সদস্য মনিরুলের পরিবার বিবাহের সময় ১০ লাখ টাকা যৌতুক নিয়েছিল। কিছুদিন আগে তিনি জানতে পারেন, মনিরুল অন্য কোনো মেয়ের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি সুরভী জানতে পারলে বৃহস্পতিবার তাদের মাঝে বাগবিতণ্ডা হয়। এর পর থেকেই সুরভীকে রহস্যজনকভাবে কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তিনি দাবি করেন, মনিরুল ও তার মা মিলে সুরভীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পানিতে ফেলে দিয়েছে।

উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক কুমার জানান, লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার রাতে নিহত গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে মনিরুল ও তার মা মনিরা বেগমকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার অভিযুক্ত দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন