‘মাদক কারবারি’ ইউনিয়নে পুলিশের চিরুনি অভিযান

‘মাদক কারবারি’ ইউনিয়নে পুলিশের চিরুনি অভিযান

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, নগরকন্ঠ.কম : ‘এক ইউনিয়নেই ১০০ মাদক কারবারি’ শিরোনামে কালের কণ্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর মাদকের বিরুদ্ধে ওই ইউনিয়নে চিরুনি অভিযান শুরু করেছে বিরামপুর থানা পুলিশ। এরই অংশ হিসেবে শনিবার দুপুরে কাটলা ইউনিয়নের উত্তর দাউদপুর গ্রামের ইউনুস আলীর স্ত্রী নজিরন বেগমকে আটক করে পুলিশ। এসময় তার কাছে ৮৮ বোতল ফেনসিডিল পাওয়া গেছে।

আটক নজিরন বেগম (৩২) কাটলা ইউনিয়নের উত্তর দাউদপুর গ্রামের ইউনুস আলীর স্ত্রী। স্বামী ইউনুস আলীর নামে বগুড়া শেরপুর, দিনাজপুর, বিরামপুরসহ দেশের বিভিন্ন থানায় মাদকের পাঁচটি মামলা রয়েছে।

মামলার বরাত দিয়ে জানাযায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কাটলা ইউনিয়নের উত্তর দাউদপুর গ্রামের ইউনুস আলীর বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় ইউনুস আলীর স্ত্রী নজিরনকে (৩২) আটক করা হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ইউনুস পালিয়ে যান। পরে তার বাড়ি থেকে ৮৮ বোতল ফেনসিডিলের বোতল উদ্ধার করা হয়।

এর আগে ইউনিয়নের কাজিপড়া গ্রামে খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের বাড়িতে বিরামপুর থানার ওসিসহ পুলিশ সদস্যরা উঠান বৈঠক করে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে খুচরা ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলেও তাদের পরিবার ও প্রতিবেশিদের নিয়ে পুলিশ মাদকের ভয়াবহতা সর্ম্পকে আলোচনা করে।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ‘এক ইউনিয়নেই ১০০ মাদক কারবারি’ শিরোনামে শুক্রবার কালের কণ্ঠ পত্রিকায় একটি অনুসন্ধানী সংবাদ প্রচার হয়। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে আমরা কাজ শুরু করে দিয়েছি। এর আগেও ওই ইউনিয়নের মাদক ব্যবসা বন্ধে আমারা নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করেছি। কোন মাদক ব্যবসায়ীদের ছাড় দেওয়া হবে না।

নগরকন্ঠ.কম/এআর

কোন কমেন্ট নেই

উত্তর দিন