শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৬:২০ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
করোনায় কাজ হারিয়েছেন ৬২ শতাংশ মানুষ আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে কোভিড মোকাবেলায় গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন গ্রহণে নেতৃত্ব দিল বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে কোভিড মোকাবেলায় গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন গ্রহণে নেতৃত্ব দিল বাংলাদেশ ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রথম সর্বোচ্চ নেতা আলী খামেনি ভোট দিয়েছেন শ্লোগান নয়, আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করতে হবে খালেদা জিয়াকে: গয়েশ্বর খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে স্ট্যান্টবাজিই বিএনপির বর্তমান উদ্দেশ্য: হানিফ শুরু হচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগ পর্ব ফের গাজায় বিমান হামলা চালাল ইসরায়েল বেতন বাড়ছে ক্রিকেটারদের সখীপুরে উপবৃত্তিবঞ্চিত কয়েক হাজার শিক্ষার্থী

তদন্তের আগে আন্দোলনের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন কাদেরের

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় তদন্তের মাধ্যমে ‘প্রকৃত সত্য’ বের হওয়ার আগেই তার পক্ষে বা বিপক্ষে আন্দোলন কতটা যৌক্তিক প্রশ্ন রেখে তা ভেবে দেখতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজের সরকারি বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছিলেন তিনি। তিনি বলেন, সাংবাদিকদের স্বার্থ বিরোধী কোনো কিছুই করবে না সরকার। শেখ হাসিনা সরকার সাংবাদিকবান্ধব সরকার। গণমাধ্যমের যে কোনো বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত সহানুভূতিশীল। সাংবাদিকদের সুখে দুখে এবং গঠনমূলক সাংবাদিকতার পথ অনুসরণে প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে আছেন। খবর বিডিনিউজের।
প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের মুক্তি দাবি ও হেনস্তার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দাবি করে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করছেন সাংবাদিকরা। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ করছেন তারা। দিনভর রাজধানীর নানা স্থানে মানববন্ধন, অবস্থান কর্মসূচি ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠন।
সাংবাদিকদের আন্দোলনের প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকগণ পেশাগত কারণে বিভিন্ন ভাবে তথ্য সংগ্রহ করেন। তথ্য অধিকার আইন অনুযায়ী অপ্রকাশযোগ্য তথ্য ছাড়া অন্যান্য তথ্য সংগ্রহের সুযোগ রয়েছে সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে, কিন্তু অভিজ্ঞ সাংবাদিক তথ্য সংগ্রহে যে প্রক্রিয়া অনুসরণ করেছেন তা সঠিক পদ্ধতি কিনা তা ভেবে দেখার বিষয়। গতকাল বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচারিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, সংশ্লিষ্ট সাংবাদিক এক পর্যায়ে নিজের ভুল স্বীকার করে মুখে মুচলেকা দেওয়ার কথাও বলেছেন। এ সময় ওবায়দুল কাদের প্রশ্ন রাখেন, চৌর্যবৃত্তি আর সাংবাদিকতাকে আমরা কি এক করে ফেলতে পারি?
তদন্তের আগে আন্দোলনের যৌক্তিকতার বিষয়ে তিনি বলেন, তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত সত্য বের হওয়ার আগেই তার পক্ষে বা বিপক্ষে আন্দোলন কতটা যৌক্তিক, সেটাও সাংবাদিক বন্ধুদের ভেবে দেখার আহবান জানাচ্ছি। একজন অন্যায় করলে ঢালাওভাবে সবাইতো সেজন্য দায়ী নন। সচিবালয়ে প্রতিদিন সাংবাদিকরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করেন এবং তথ্য সংগ্রহ করেন। কিন্তু কেউ এভাবে লুকিয়ে ফাইলের ছবি তোলেন না বা নথি নিয়ে যায় না। সংশ্লিষ্ট সাংবাদিক নিজেও ভুল স্বীকার করছেন। আত্মস্বীকৃত একজনের ভুলের জন্য সাংবাদিক বন্ধুদের এমন অবস্থান গ্রহণ কেন? কেউই আইনের উর্ধ্বে নন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আইন সবার জন্য সমান। যেহেতু বিষয়টি তদন্তাধীন তাই এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। ইতোমধ্যে বিষয়টি তদন্তের জন্য ডিবিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, তদন্ত কাজে সরকার কোনরূপ হস্তক্ষেপ করবে না।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com