সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০৯:৪৬ অপরাহ্ন

একাধিকবার স্থগিত, নতুন করে ‘আরআরআর’র মুক্তির দিন ধার্য

গতবছর ৭ জানুয়ারী এ সিনেমাটির মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ বিধিনিষেধের কারণে মুক্তির তারিখটি পিছিয়ে দেওয়া হয়। এবার নির্মাতারা আরআরআর’র জন্য দুটি নতুন তারিখ ঘোষণা করেছেন।

চলতি বছরের ১৮ মার্চ অথবা ২৮ এপ্রিল মুক্তি পেতে পারে সিনেমাটি। বহুল প্রতীক্ষিত আরআরআর সিনেমার মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন- রাম চরণ, জুনিয়র এনটিআর, আলিয়া ভাট এবং অজয় দেবগন। এটি প্রযোজনা করেছেন ডি.ভি. ভি. দানয়া।

আরআরআর’র নির্মাতা তার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোষ্ট-এর মাধ্যমে জানিয়েছে যে, “যদি দেশে মহামারী পরিস্থিতি ভালো হয়ে যায় এবং সমস্ত সিনেমা হল পূর্ণ ক্ষমতায় কাজ করার জন্য খুলে যায়, তবে ১৮ মার্চ সিনেমাটি মুক্তি দিতে প্রস্তুত তারা। অন্যথায়, আরআরআর মুক্তি পাবে ২৮ এপ্রিল।

আরআরআর সিনেমার গল্প লিখেছেন কেভি বিজয়েন্দ্র প্রসাদ। ৪০০ কোটি রুপির মেগা-বাজেটে তৈরি সিনেমাতে রাম চরণ এবং জুনিয়র এনটিআর যথাক্রমে মুক্তিযোদ্ধা আলুরি সীতারামন রাজু এবং কোমারাম ভীমের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়া আলিয়া ভাট এবং অজয় দেবগনকে ক্যামিও চরিত্রে দেখা যাবে।

Please Share This Post in Your Social Media

বড় পর্দায় ২০ মে মুক্তি পেতে চলেছে বলিউডের তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় নায়িকা কিয়ারা আদবানি অভিনীত ছবি ‘ভুল ভুলাইয়া ২’। আনিস বাজমি পরিচালিত এই ছবিতে তার সঙ্গে আছেন তরুণদের হার্টথ্রব নায়ক কার্তিক আরিয়ান। আরও রয়েছেন টাবু, রাজপাল যাদব, সঞ্জয় মিশ্রসহ দক্ষ অভিনয়শিল্পী। এর আগে ‘ভুল ভুলাইয়া’ ছবিতে দেখা গেছে অক্ষয় কুমার, বিদ্যা বালান, আমিশা প্যাটেল ছাড়া অনেককে। সংগত কারণে ‘ভুল ভুলাইয়া ২’ ছবির ঘোষণার পর থেকে কিয়ারার সঙ্গে বিদ্যার ক্রমাগত তুলনা টানা হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে কিয়ারার মন্তব্য, ‘ভুল ভুলাইয়া’ জনপ্রিয় ছবি ছিল। আর ‘ভুল ভুলাইয়া ২’ এর ফ্র্যাঞ্চাইজি। তাই স্বাভাবিক নিয়মে তুলনা উঠে আসবে। সব ফ্র্যাঞ্চাইজির ক্ষেত্রে এটা হয়। তবে আপনারা শুধু এই ছবির ট্রেলার দেখেছেন। তাই এখন পর্যন্ত জানেন না যে কে আসল ‘মঞ্জুলিকা’। এই ছবির সব চরিত্রে আলাদা শেডস আর ব্যক্তিত্ব লুকিয়ে আছে। আমার চরিত্রের ক্ষেত্রেও তাই। ‘ভুল ভুলাইয়া ২’ দেখার পর এই তুলনা টানা বন্ধ হবে বলে মনে হয়।’ কিয়ারাকে শেষ দেখা গেছে আমাজন প্রাইম ভিডিওর ‘শেরশাহ’ ছবিতে। এই ছবিতে ‘ডিম্পল চিমা’র চরিত্রে সবার নজর কেড়েছেন তিনি। তার অভিনীত চরিত্রটি ছোট হলেও জোরদার ছিল। অনেকে মনে করেন ‘কবির সিং’ ছবিটি কিয়ারার জীবনের মোড় অনেকটা ঘুরিয়ে দিয়েছে। তবে এ ব্যাপারে মোটেও একমত নন তিনি। এই বলিউড নায়িকার মতে, “আসলে ‘কবির সিং’ ছবি থেকে আমি প্রচুর ভালোবাসা পেয়েছি। অনেকে আমাকে বাস্তবে ‘প্রীতি’ বলে ভাবতে শুরু করেছিল। তবে আমি মনে করি যে আমার প্রতিটা ছবি-ই আমার জীবনের ‘টার্নিং পয়েন্ট’। ‘ফাগলি’ আমার ক্যারিয়ারের প্রথম টার্নিং পয়েন্ট ছিল। কারণ, এই ছবির হাত ধরে আমি ইন্ডাস্ট্রিতে পা রেখেছিলাম। আমি মনে করেছিলাম যে আমি যত কাজ করব, তত বেশি কাজ পাব। ‘লাস্ট স্টোরিজ’-এর মাধ্যমে আমি চিত্র সমালোচকদের নজরে পড়েছিলাম। সবার প্রশংসা পেয়েছিলাম। তখন বোঝার মতো বোধশক্তি ছিল না যে করণ জোহরের মতো নির্মাতার সঙ্গে কাজ করেছি। এখন পেছনের দিকে তাকালে সত্যি গর্ব অনুভব করি। কারণ, ‘লাস্ট স্টোরিজ’-এর মতো সাহসী কনটেন্টে কাজ করেছি। তবে নিশ্চয় ‘কবির সিং’ ছবির পর আমার ক্যারিয়ারের খেলাটাই যেন বদলে গেছে। ‘গুড নিউজ’, ‘শেরশাহ’ এসব ছবি আমাকে এক উচ্চতায় পৌঁছে দিয়েছে।”

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com