মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০৭:২৩ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ

ডি-৮ সিওএম এর সভাপতি হলেন ড. মোমেন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুৎ কাভুসোগলু’র কাছ থেকে ডি-৮ কাউন্সিল অব মিনিস্টার্সের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। তিনি পরবর্তী দুই বছর এই দায়িত্ব পালন করবেন।
বুধবার ডি-৮ শীর্ষ সম্মেলনের প্রস্তুতি সভা হিসেবে আয়োজিত ডি-৮ সিওএম-এর ১৯তম অধিবেশনে ভার্চুয়ালি এই সভাপতির দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়।
সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করে ড. মোমেন সফলভাবে ডি-৮ সিওএম এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করায় তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় তিনি ডি-৮ সদস্যভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বলেন, ১৯৯৯-২০০১ মেয়াদে বাংলাদেশ সফলভাবে ডি-৮ এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছে। ঢাকা দুই দশক পর আবার দ্বিতীয় মেয়াদে ডি-৮ এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, ‘এটি এমন এক সময় হচ্ছে যখন আমরা আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম-শত বার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ-জয়ন্তী পালন করছি।’
ডেভেলপিং-৮ হিসেবেও পরিচিত ডি-৮ অর্গানাইজেশন ফর ইকোনোমিক কো-অপারেশন ৮টি উন্নয়নশীল মুসলিম দেশ- বাংলাদেশ, মিশর, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, মালয়েশিয়া,নাইজেরিয়া, পাকিস্তান ও তুরস্কের সমন্বয়ে গঠিত।
বাংলাদেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিওএম-এ বক্তৃতাকালে কোভিড পরবর্তী যুগে ডি-৮ সদস্য রাষ্ট্রগুলোর জনগণের জীবন ও জীবিকা উন্নয়নে সকল সদস্যের মধ্যে মহামারি-পরবর্তী একটি সহনশীল সহযোগিতা গড়ে তোলার প্রস্তাব দেন। তিনি বিশ্ব অর্থনীতির ওপর কোভিড-১৯ এর নেতিবাচক প্রভাব দূরীকরণে সদস্য দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।
তিনি আরো বলেন, ‘আমি আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করি যে- সকলের অভিন্ন স্বার্থ সংরক্ষণ নিশ্চিত করতে ডি-৮ এর একটি ডিজিটাল বাজার-ব্যবস্থা গড়ে উঠবে এবং সকলের জন্য সহনশীল ও প্রযোজ্য একটি সহযোগিতার মডেল প্রস্তুত করা হবে।’
এ সময় ডি-৮ ভুক্ত অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরাও বক্তব্য রাখেন। ডি-৮ মহাসচিব সভাটি সঞ্চালনার জন্য সভাপতিকে ধন্যবাদ জানান এবং ২০১৯ সাল থেকে সংগঠনটির বিভিন্ন কর্মকা-ের একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন।
কাউন্সিল সচিবগণ কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের ব্যাপারে আলোচনা ও পর্যালোচনা করেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ভার্চুয়ালি ‘ঢাকা ডিক্ল্যায়ারেশন ২০২১’ ও ‘ডি-৮ ডেসেনিয়েল রোডম্যাপ ফর ২০২০-২০৩০’ অনুমোদন করেন এবং চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য দশম ডি-৮ শীর্ষ-সম্মেলনের ডি-৮ নেতৃবৃন্দের প্রতি তা অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করেন।
সভাপতি ঘোষণা দেন যে- বাংলাদেশ ২০২২ সালের গোড়ার দিকে ঢাকায় ডি-৮ কাউন্সিল অব মিনিস্টার্স-এর পরবর্তী সভার আয়োজন করে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com