বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
নায়িকাদের ‘ফিগার’ নিয়ে যা বলতেন ডা. মুরাদ ইমনকে র‍্যাব কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে আইসিসির নভেম্বরের সেরার লড়াইয়ে নাহিদা ইইউ মন্ত্রীরা স্বল্প বেতনের কর্মীদের মজুরী সুরক্ষার ব্যবস্থা নিতে সম্মত কোভিড-১৯-এর চ্যালেঞ্জ ও প্রভাব মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশের সঙ্গে কোনো সমস্যা চায় না ভারত : মোমেন মুরাদ হাসান জেলা আওয়ামী লীগ থেকেও অব্যাহতি পাচ্ছেন : ওবায়দুল কাদের সমালোচনা সত্বেও পিএসজির খেলার ধরনে পরিবর্তন হবে না : পচেত্তিনো কিউলেক্স মশক নিধনে বিশেষ অভিযান শুরু ২২ ডিসেম্বর থেকে : মেয়র আতিক ভোলায় ডিজিটাল সেন্টারের ১১ বছর পূর্তি উদযাপন ও ই-সেবা ক্যাম্পেইন

মানুষ যাতে ট্রল না করে সেদিকে খেয়াল রাখছেন অনন্ত জলিল

নতুন চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু করেছেন চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল। এই ছবিতে নিজের স্ত্রীর দেহরক্ষী হিসেবে কাজ করছেন অনন্ত জলিল। ছবিতে পরিপূর্ণ অবয়ব ফুটিয়ে তুলতে কঠোর পরিশ্রম করছেন নায়ক। জানালেন, মানুষ যেন ট্রল না করে সেদিকে খেয়াল রাখছেন। সম্প্রতি মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে ‘নেত্রী দ্য লিডার’ চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু হয়েছে। ছবিতে নেত্রী রূপে ধরা দেবেন চিত্রনায়িকা বর্ষা।

এই চলচ্চিত্রের আয়োজন নিয়ে প্রায় মাথা খারাপ হয়ে গেছে অসম্ভবকে সম্ভব করা এই নায়কের। কারণ জিজ্ঞেস করতেই বললেন, ছবিতে অ্যাক্টিং করছি প্রোডিউস করছি এর পাশাপাশি এর কনসেপ্ট ও কস্টিউমের কাজও আমি করছি। সব ম্যানেজমেন্ট দেখাশোনা- মাথাটা কিভাবে ভালো থাকে বলেন।

আক্ষেপ থাকলেও অনন্ত জলিলের কথা শেষ পর্যন্ত আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে শেষ হয়। নিজের চরিত্র বিশ্লেষণ করতে গিয়ে বলেন, আসলে আমি তো সবসময় চ্যালেঞ্জ নিতেই ভালোবাসি। এটি চ্যালেঞ্জিং চরিত্র, আর এজন্য আমাকে খাটতে হচ্ছে প্রচুর। ঘুমানোর আগেও চরিত্রটি নিয়ে ভাবছি, কতটা সুনিপুণভাবে পর্দায় চরিত্রটির রূপদান করা যায় ভেতরে ভেতরে সেই তাগিদ অনুভব করছি।

অনন্ত জলিল বলেন, চলচ্চিত্রে নেত্রীর অফিস, কনফারেন্স রুম ডিজাইন দেখে মনে হবে এটা কোনও দেশের নেত্রীর অফিস ডিজাইন! অন্যান্য শিল্পীদের ড্রেস, লুক সবকিছু নিয়ে আমি কাজ করেছি। তুরস্কে শুটিং এবং সেখানকার সবার সঙ্গে যোগাযোগ আমি নিজে করছি। আমাদের গল্পে তাদের কাজে আগ্রহী করা। এমন কোনো কাজ নাই যে আমি এই সিনেমার জন্য করছি না।

খোঁজ দ্য সার্চ খ্যাত এই নায়ক বলেন, একমাসে ধরে আমি সাড়ে তিন ঘণ্টার বেশি ঘুমাতে পারি নাই, শুধু এই ছবির জন্য। এতে আমি নেত্রীর দেহরক্ষী হিসেবে কাজ করছি। আফসোস হচ্ছিল, এই চরিত্রে আমার তেমন নতুন কস্টিউম নাই। দেখছি আমাদের প্রধানমন্ত্রীর দেহরক্ষী হিসেবে যারা কাজ করেন তাদের আচরণ পোশাক কেমন।

অনন্ত বলেন, মানুষ যেন ট্রল না করে সেদিকে খেয়াল রাখছি। মানুষের বোঝা উচিত এত বড় ইন্টারন্যাশনাল মানের সিনেমা করতে কতটা পরিশ্রম ও আয়োজন রাখা উচিত। বেটার লোকেশনের জন্য কিছু শুটিং চেন্নাইতে করেছি। বাংলাদেশের অংশ শেষ করে তুরস্কে শুটিং করবো। সেখানে বাকি ৫০ শতাংশ শুটিং শেষ হবে। শুটিং শেষ না হলে বলা যাবে না ‘নেত্রী’ সিনেমার বাজেট আসলে কত!

এই চলচ্চিত্রে পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন তামিল পরিচালক উপেন্দ্র মাধব। অনন্ত জলিল বর্ষা ছাড়াও অভিনয় করছেন তামিল ভিলেন প্রদীপ রাওয়াত, তরুণ অরোরা, বাংলাদেশের কাজী হায়াত।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com