সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:৫৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
ডিপজল-জয় চৌধুরীর মারামারি! দশম-দ্বাদশে নিয়মিত ক্লাস, বাকিদের সপ্তাহে একদিন কাশিমপুর কারাগারের জেল সুপার ও জেলার প্রত্যাহার যাদের ঘর নেই, জমি নেই এরকম ৬৬ হাজার মানুষকে বাড়ী করে দিলো সরকার – রেলপথ মন্ত্রী  ২ মাস পর প্রথম রোগী শনাক্ত নিউজিল্যান্ডে সিনেমায় অভিনয় করছেন নায়লা নাঈম! ‘মাদকসম্রাট’ হিসেবে পরিচিত চীনা বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক সে চি লোপ গ্রেপ্তার হয়েছেন নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে পরীক্ষা ছাড়াই এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা অটো পাস সংক্রান্ত বিল জাতীয় সংসদে পাস একটি স্বার্থান্বেষী মহল করোনার টিকা নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে -ওবায়দুল কাদের সোমবার করোনার ৫০ লাখ টিকা দেশে আসছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

২০২০ সালে কর্মক্ষেত্রে মৃত্যু হয়েছে ৭২৯ শ্রমিকের

গত বছর দেশে কর্মক্ষেত্রে বিভিন্ন দুর্ঘটনায় ৭২৯ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ৩৪৮ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে পরিবহন খাতে। আর মৃত্যুর দিক থেকে নির্মাণ খাত দ্বিতীয় ও কৃষি খাতের অবস্থান তৃতীয়। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ (বিলস) এক পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে। বিভিন্ন জাতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ‘বাংলাদেশের শ্রম ও কর্মক্ষেত্র পরিস্থিতি বিষয়ে সংবাদপত্রভিত্তিক বিলস জরিপ-২০২০’ শীর্ষক এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি ৩৪৮ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে পরিবহন খাতে। নির্মাণ খাতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৪ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে কৃষি খাতে। এছাড়া দিনমজুর ৪৯ জন, বিদ্যুৎ খাতের ৩৫ জন, মৎস্য খাতের ২৭ জন, স্টিল মিলের ১৫ জন, নৌপরিবহন খাতের ১৫ জন, অভিবাসী শ্রমিক ১৫ জন ও ১৪ জন মেকানিকের মৃত্যু হয়েছে এই সময়ে। এর আগে, ২০১৯ সালে কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় ১ হাজার ২০০ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছিল। অনুষ্ঠানে বিলসের ভাইস চেয়ারম্যান সংসদ সদস্য শিরিন আখতারসহ আনোয়ার হোসাইন, আমিরুল হক আমিন, উপদেষ্টা নইমুল আহসান জুয়েলসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিবেদেন বলা হয়, ২০২০ সালে কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় ৪৩৩ জন শ্রমিক আহত হন। এর মধ্যে ৩৮৭ জন পুরুষ, ৪৬ জন নারী শ্রমিক। আহতদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৬৮ জন ছিলেন মত্স্য খাতে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নির্মাণ খাতে ৪৯ জন শ্রমিক আহত হন। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতে ৪৮, পরিবহন খাতে ৪৭, জুতা কারখানায় ২০ জন, নৌপরিবহন খাতে ১৬ জন, তৈরি পোশাক শিল্পে ৩৭, জাহাজ ভাঙা শিল্পে ২৯, দিনমজুর ১৬ জন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com