বুধবার, ২৮ Jul ২০২১, ১০:০২ অপরাহ্ন

আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে কোভিড মোকাবেলায় গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন গ্রহণে নেতৃত্ব দিল বাংলাদেশ

বাংলাদেশের নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে (আইএলসি) সারা বিশ্বের শ্রমিকদের জন্য টিকা এবং ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী লাভের সুযোগ নিশ্চিত করার জন্য বৈশ্বিক আহ্বান জানানো হয়েছে।
কোভিড মহামারীর কারণে বিশ্বব্যাপী শ্রমবাজারে যে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে তা থেকে দ্রুত উত্তরণের লক্ষ্যে এবারের আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে একটি গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন গৃহীত হয়েছে।
প্রস্তাবনায় কোভিড মহামারীতে শ্রমিক শ্রেণী বিশেষত: স্বাস্থ্য কর্মীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিরসনে তাদের কোভিড টিকা প্রদান ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পিপিই) এর প্রাপ্যতা এবং যথাযথভাবে বেতন-ভাতার সুরক্ষা নিশ্চিত করার আহ্বান জানানো হয়।
বিশ্ব শ্রমবাজার ও অর্থনীতি পুনরুজ্জীবিত করার লক্ষ্যে পৃথিবীর সকল দেশের সকল মানুষের জন্য সময়োচিত ও সাশ্রয়ী কোভিড টিকার ন্যায়সঙ্গত প্রাপ্যতার প্রয়োজনীয়তা জোরালোভাবে তুলে ধরা হয়।
এছাড়া, কোভিড-১৯ এর প্রতিকূল প্রভাবে বিশ্বের উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলোর মধ্যে ক্রমবর্ধমান অসমতা দূরীকরণ এবং শ্রম বাজারে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জসমূহ মোকাবেলায় রাষ্ট্রসমূহকে যথাযথ সহায়তা প্রদানের জন্য আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থাকে অধিকতর কার্যকরী ভূমিকা পালনের আহ্বান জানানো হয়।
মহামারীকালীন ক্ষতি কাটিয়ে উঠার লক্ষ্যে বিশেষত: নারী, বৃদ্ধ ও অভিবাসীদের জন্য বিশেষ কর্মপন্থা প্রণয়ন ও সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি সম্প্রসারণের উপর আলোকপাত করা হয়।
প্রস্তাবনায় মহামারী পরবর্তী একটি টেকসই, গণমুখী ও অন্তর্ভুক্তিমূলক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের উপর ও গুরুত্বারোপ করা হয়। এ গুরুত্বপূর্ণ দলিলটি শ্রম সম্মেলনের কোভিড সংক্রান্ত টেকনিক্যাল কমিটিতে দীর্ঘ আলোচনার পর চূড়ান্ত করা হয়।
জেনেভাস্থ বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মো: মোস্তাফিজুর রহমান উক্ত কমিটিতে সভাপতিত্ব করেন। উল্লেখ্য, একই সময়ে কমিটিতে বাংলাদেশ এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর সমন্বয়কের ভূমিকাও পালন করে এবং এ অঞ্চলের মহামারী সংক্রান্ত চ্যালেঞ্জগুলো তুলে ধরে তা মোকাবেলায় করণীয় সম্পর্কে দিক-নির্দেশনা প্রদান করে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com