শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১১:৩৭ অপরাহ্ন

সামাজিক অনুষ্ঠানসহ বাসা-বাড়িতে গান-বাজনায় নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহজালাল বাদল

গত সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জের বটতলা এলাকায় অবস্থিত কাউন্সিলর শাহ্জালাল বাদলের কার্যালয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ওয়ার্ডের বিভিন্ন মসজিদ কমিটি, পঞ্চায়েত কমিটি ও ওয়ার্ড উন্নয়ন কমিটির লোকজনও উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে এলাকায় গান-বাজনার আয়োজনে নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তের বিষয়টি জানানো হয়। শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকরের কথাও বলা হয়।

এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে দেখা যায়, কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে এক ব্যক্তি বলছেন, বুধবার থেকে প্রতিটি মসজিদ কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও পঞ্চায়েত কমিটি বরাবর কাউন্সিলর কার্যালয় থেকে চিঠি ইস্যু করা হবে। আজ শুক্রবারে গান-বাজনা না করার ব্যাপারে জুমার নামাজেও যেন এই ব্যাপারে আলোচনা করা হয়। আগামীকাল শনিবার থেকে এই এলাকায় গান-বাজনা করা সম্পূর্ণ নিষেধ। এই মুসলমান সমাজে যাতে গান-বাজনা না হয় সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের কথা এলাকার প্রতিটি বাড়িওয়ালাকেও জানিয়ে দেয়া হবে।

তবে স্থানীয়রা বলছেন, ‘নিয়মিত গান-বাজনা বন্ধ করা মনে হয় ঠিক হবে না। কেননা, সরকারিভাবে কোন নির্দেশনা নেই।’

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জটের সহ-সভাপতি দিম্যাং সাহা জুয়েল বলেন, ‘এ ঘটনায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। পাশাপাশি কাউন্সিলরকে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাই।’

তবে কাউন্সিলর শাহাজালাল বাদল গান-বাজনা নিষিদ্ধের ঘোষণা করার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘গান-বাজনা বন্ধ করার বিষয়টি যে আসছে আসলে তা কখনো নয়। এটা নিয়ে মিথ্যা কথা বলা হচ্ছে। আমাকে ঘায়েল করতে এবং সামনের নির্বাচন বানচালের জন্য আমার প্রতিপক্ষ মূলত ষড়যন্ত্র করছে।’

জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, ‘শিশু, রোগী, বয়বৃদ্ধ, হাসপাতালের পাশে যেন কোন সাউন্ড বা উচ্চশব্দ না হয় সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকে নির্দেশনা আছে। এর বাহিরে কেউ যদি ব্যক্তিগতভাবে করতে চায় সেটি আইনগতভাবে সিদ্ধ নয়। তাই এ ব্যাপারে তদন্ত করে আইনগতভাবে ব্যবস্থা নেব।’

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com