শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৭:০১ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
করোনায় কাজ হারিয়েছেন ৬২ শতাংশ মানুষ আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে কোভিড মোকাবেলায় গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন গ্রহণে নেতৃত্ব দিল বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে কোভিড মোকাবেলায় গ্লোবাল কল টু এ্যাকশন গ্রহণে নেতৃত্ব দিল বাংলাদেশ ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রথম সর্বোচ্চ নেতা আলী খামেনি ভোট দিয়েছেন শ্লোগান নয়, আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করতে হবে খালেদা জিয়াকে: গয়েশ্বর খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে স্ট্যান্টবাজিই বিএনপির বর্তমান উদ্দেশ্য: হানিফ শুরু হচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগ পর্ব ফের গাজায় বিমান হামলা চালাল ইসরায়েল বেতন বাড়ছে ক্রিকেটারদের সখীপুরে উপবৃত্তিবঞ্চিত কয়েক হাজার শিক্ষার্থী

নির্বিঘ্নে কোরবানির পশু কেনার সুযোগ দিচ্ছে ‘ইভ্যালি গরুর হাট’

মঙ্গলবার (৮ জুন) এলক্ষ্যে ইভ্যালি এবং আলমগীর র‌্যাঞ্চের মধ্যে এক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। আগামী ঈদুল আযহায় কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রেতার দোরগোড়ায় সহজেই কোরবানির গরু পৌঁছে দিতেই উভয় প্রতিষ্ঠানের এই যুগপত পথচলা।

ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল এবং আলমগীরে র‌্যাঞ্চের পরিচালক ও লাবিব গ্রুপের চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান সুলতানা জাহানসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এক যৌথ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ইভ্যালি থেকে আলমগীর র‌্যাঞ্চের গরু কিনলে গ্রাহকের নির্ধারিত স্থানে নির্দিষ্ট সময়ে তা পৌঁছে দিবে কর্তৃপক্ষ। আর ‘ইভ্যালি গরুর হাট’ থেকে এখনই গরু কিনলে, কোরবানির আগ পর্যন্ত গরুর যাবতীয় লালন-পালনের দায়িত্ব আলমগীর রেঞ্চের। সেক্ষেত্রে গরু লালন পালনের কোন খরচ গ্রাহককে বহন করতে হবে না।

শুধু তাই নয়, এই সময়ের মধ্যে গরুর ওজন বেড়ে গেলেও গ্রাহককে বাড়তি কোন মূল্য পরিশোধ করতে হবে না। পাশাপাশি গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী ঈদের তিন থেকে চার দিন আগে কোরবানির গরু নিরাপদে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে।

এই উদ্যোগকে সময়োপযোগী উল্লেখ করে আলমগীর র‌্যাঞ্চের পরিচালক সুলতানা জাহান বলেন, ইভ্যালি’র মাধ্যমে সারাদেশের মানুষের কাছে আমরা সুস্থ্য ও নিরাপদ গরু পৌঁছে দিতে চাই। পবিত্র ঈদুল আযহায় সবচেয়ে ভালো গরুই যেন আমাদের দেশের মানুষ কোরবানি করতে পারেন; সেলক্ষ্যে আমরা এবং ইভ্যালি একইসাথে নিয়োজিত আছি।

এ বিষয়ে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল বলেন, আমরা খুবই আনন্দিত যে আলমগীর র‌্যাঞ্চ আমাদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে কোরবানি ঈদে আলমগীর র‌্যাঞ্চের পশুগুলো ইভ্যালি থেকে সহজেই কিনতে পারা যাবে। আশা করছি, আমরা বেস্ট কোয়ালিটি সার্ভিস দিতে পারবো।

প্রসঙ্গত, গরুর বিশ্বস্ত ফার্ম আলমগীর র‌্যাঞ্চ দীর্ঘদিন ধরে উন্নত জাতের ও স্বাস্থ্যবান, সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সাথে সঠিক যত্ন ও পরিচর্যার মাধ্যমে পালিত গরু দেশজুড়ে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। তাদের গরুগুলোকে ভেজালহীন, পুষ্টিকর ও নিরাপদ খাবার খাওয়ানোর মাধ্যমে প্রাকৃতিকভাবে বড় করা হয়। এছাড়া গরুকে সুস্থ-সবল দেখানোর জন্য কোন ধরনের অনিরাপদ ওষুধ কিংবা স্টেরয়েড ব্যবহার করে না।

২৪ ঘন্টা দক্ষ খামারি ও অভিজ্ঞ চিকিৎসকের সার্বক্ষণিক তত্বাবধানে পালিত সুস্থ-সবল গরু সরবরাহ করে প্রতিষ্ঠানটি। যা ক্রেতা ও ভোক্তাদের জন্য হালাল ও স্বাস্থ্যকর মাংস নিশ্চিত করে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইভ্যালির চীফ মার্কেটিং অফিসার আরিফ আর হোসেন, চীফ অপারেটিং অফিসার তরিকুল কামরুল এবং হেড অব কমার্শিয়াল সাজ্জাদ আলম উপস্থিত ছিলেন। (বিজ্ঞপ্তি)

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com