মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:১৮ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
বগুড়ায় রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন ইসি গঠনে আইন প্রণয়ন, কমিশনকে শক্তিশালী ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতা নিশ্চিত করাসহ বিভিন্ন প্রস্তাব আওয়ামী লীগের জুনিয়র গ্রেড কর্মকর্তাদের বেতন ৫০% পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে ব্র্যাক ব্যাংক ইসি গঠনে আইন ‘যেই লাউ সেই কদু’: বিএনপি আন্দোলনে ‘সংহতি’ জানাতে শাবি ক্যাম্পাসে আ. লীগ নেতারা ভার্চ্যুয়াল আদালতে ফেরার ইঙ্গিত প্রধান বিচারপতির প্রকল্প বাস্তবায়নে জেলা পর্যায়ে কমিটি করার দাবি, সায় নেই সরকারের দেশে করোনার ২০ শতাংশ রোগীই ওমিক্রনে আক্রান্ত টিকা না নিলে ফ্রেঞ্চ ওপেনেও খেলতে পারবেন না জকোভিচ আগামী মাসে সুইজারল্যান্ডের সাথে প্রীতি ম্যাচ খেলবে ইংল্যান্ড

ঘনিষ্ঠ দৃশ্যই বিচ্ছেদের কারণ!

কিছুদিন ধরে গুঞ্জন ছিল। এক দিন সত্যি সত্যিই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের নামের শেষ থেকে ‘আক্কিনেনি’ পদবিটা সরিয়ে ফেলেন সামান্থা। গত বছরের অক্টোবরে ভেঙে যায় তেলেগু ছবির জনপ্রিয় দুই তারকা নাগা চৈতন্য ও সামান্থার ঘর। কিন্তু কেন ভাঙল তাদের সম্পর্ক, তা নিয়ে জল্পনার শেষ নেই। প্রকাশ্যে বিচ্ছেদ নিয়ে এত দিন মন্তব্য করেননি দুজন। অবশ্য ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে নিজের অবস্থান আগেই স্পষ্ট করেছিলেন মেগাস্টার নাগার্জুনপুত্র নাগা চৈতন্য। অবশেষে ভারতীয় একটি গণমাধ্যমে ‘বঙ্গরজু’ ছবির প্রচারের ফাঁকে বিচ্ছেদ নিয়ে সরাসরি মন্তব্য করেছেন নাগা। তিনি জানান, ‘একটা সম্মিলিত সিদ্ধান্ত এটি। ব্যক্তিগত সুখ-শান্তির জন্যই এই বিচ্ছেদ। আমি মনে করি না আমরা ভুল করেছি। এখন সে খুশি, আমিও খুশি। তাই ডিভোর্স সেসব পরিস্থিতিতে সেরা সিদ্ধান্ত।’ নাগা চৈতন্যর আলাপনে জানা গেছে, পেশাই অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছিল দুজনের দাম্পত্য জীবনে। বাড়ির বউ সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করবেন, আইটেম গানে নাচবেন, তা চায়নি বাবা নাগার্জুন ও তার পরিবার। ছেলে নাগা চৈতন্য চেষ্টা করেছিলেন স্ত্রীকে বোঝানোর, কিন্তু সমঝোতা করতে রাজি নন সামান্থা। শ্বশুরবাড়ির এই ‘অনৈতিক দাবি’ মেনে না নেওয়ার জেরেই সংসার ছেড়ে বেরিয়ে এসেছেন তিনি। ‘দ্য ফ্যামিলি ম্যান’ সিরিজে সামান্থার সঙ্গে সহশিল্পীর ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করাটা একদম হজম করতে পারেননি নাগা, তা পরিষ্কার হলো তার মন্তব্যে। তিনি বলেন, ‘আমি এমন কোনো কাজ করব না, যা আমার পরিবারের পক্ষে সম্মানহানিকর।’ বিচ্ছেদের পর নেট দুনিয়ায় ভক্তদের একাংশের নেতিবাচক মন্তব্যের মুখে পড়েন সামান্থা। তবে তিনি মোটেও ভেঙে পড়েননি। তিনি বলেন, ‘ডিভোর্স একটা যন্ত্রণাদায়ক যাত্রা, দয়া করে আমাকে নিজের ক্ষতগুলো সারিয়ে তুলতে একটু একা থাকতে দিন। আমার ওপর ব্যক্তি আক্রমণ লাগাতার চলছে। কিন্তু জেনে রাখুন, কোনো কিছুই আমাকে ভাঙতে পারবে না।’

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Nagarkantha.com